চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রকাশিত হলো সমুদ্র মানচিত্রের দ্বিতীয় সংস্করণ

২০১৪ সালে দেশের সমুদ্রসীমার প্রথম সমন্বিত মানচিত্রের পর এবার তার দ্বিতীয় সংস্করণ প্রকাশ করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস অ্যান্ড ফিশারিজের অধ্যাপক সাইদুর রহমান চৌধুরী।

মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরীর হাতে মানচিত্রের কপি হস্তান্তরের মাধ্যমে উন্মোচিত করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইনস্টিটিউটের পরিচালক জাহেদুর রহমান চৌধুরী, সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ড. এম. শাহাদাৎ হোসেন এবং সহযোগী অধ্যাপক ড. এস এম শরীফুজ্জামান।

জানা যায়, নতুন সংস্করণের এই মানচিত্রে বঙ্গোপসাগরে বিভিন্ন দেশের অংশ ও আন্তর্জাতিক সমুদ্রের পরিমাণ দেখানো হয়।বঙ্গোপসাগরের ২৮ লক্ষ বর্গকিলোমিটার সমুদ্রের মাত্র ৪% বা ১১৯ হাজার বর্গকিলোমিটারের মালিক বাংলাদেশ, প্রায় ৭৩% এর মালিক অন্যান্য দেশ এবং বাদবাকি ২৩ শতাংশ আন্তর্জাতিক সমুদ্র। বাংলাদেশের সমুদ্রের ৫৬% অগভীর মহীসোপান সমুদ্র, যা মৎস্য সম্পদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের মোট মালিকানা অল্প হলেও, সবচেয়ে প্রশস্ত মহীসোপানটি বাংলাদেশেরই অংশে রয়েছে। মানচিত্রে বাংলাদেশের মোট মহীসোপানের আয়তন ৫৪ হাজার বর্গকিলোমিটার, যার মধ্যে ৪০% অংশে মৎস্য আহরণ হয়ে থাকে, সাড়ে ৪% সংরক্ষিত এলাকা, এবং বাকী অংশে মৎস্য সম্পদের অনুসন্ধান চলছে।

পছন্দের আরো পোস্ট