বাংলাদেশ পাঠ উৎসবের ঘোষণা স্টাডি ফোরামের

মহান স্বাধীনতা দিবস এবং মুজিবনগর সরকার গঠনের ৪৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম “বাংলাদেশ পাঠ উৎসব” কর্মসূচি গ্রহন করেছে। “বাংলাদেশের চোখে বিশ্ব দেখি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আগামীকাল ২৬ মার্চ থেকে শুরু করে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত ২৩ দিন ব্যপী এই কর্মসূচি চলবে। গতকাল সকাল ১০টায় সংগঠনটির সভাপতি এএসএম ইউনুস এবং সাধারণ সম্পাদক সাবিদিন ইব্রাহিম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী চত্ত্বরে এ কর্মসূচিটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ সময় বাংলাদেশ স্টাডি ফোরামের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এই কর্মসূচির আওতায় বাংলাদেশের ৩০টি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজের প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করবে। অংশগ্রহনকারীরা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ এবং বাংলাদেশের ইতিহাসের উপর রচিত বইগুলো পড়ে সেগুলোর উপর বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা এবং রিভিউ প্রকাশ করবে।

এ কর্মসূচীর জন্য দশটি বই নির্বাচন করা হয়েছে। নির্বাচিত বইগুলো হচ্ছে:

১. অসমাপ্ত আত্মজীবনী -শেখ মুজিবুর রহমান
২. দ্যা রেইপ অব বাংলাদেশ -অ্যান্থনী ম্যাসকারেনহাস
৩. মূলধারা একাত্তর -মঈদুল হাসান
৪. একাত্তরের দিনগুলি -জাহানারা ইমাম
৫. জাসদের উত্থান পতনঃ অস্থির সময়ের রাজনীতি -মহিউদ্দিন আহমদ
৬. আমি বীরাঙ্গনা বলছি -নীলিমা ইব্রাহিম
৭. আমি বিজয় দেখেছি -এম আর আখতার মুকুল
৮. গঙ্গাঋদ্ধি থেকে বাংলাদেশে – মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান
৯. আমার দেখা রাজনীতির পঞ্চাশ বছর -আবুল মনসুর আহমেদ
১০. The Cruel Birth of Bangladesh  -Archer K Blood

বাংলাদেশ পাঠ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠান আগামী ১৭ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু ভবনে অনুষ্ঠিত হবে। সর্বোচ্চ সংখ্যক বই পড়–য়া, সবচেয়ে সেরা ১০টি রিভিয়্যু লেখক ও আলোচককে সমাপনী অনুষ্ঠানে পুরুষ্কৃত করা হবে এবং বিজয়ীদেরকে বাংলাদেশের বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমনে নিয়ে যাওয়া হবে।

পছন্দের আরো পোস্ট