বেরোবিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উদযাপন

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী বলেছেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে আজকের এই বাংলাদেশ হতো না। আমরা স্বাধীন হতাম না। বঙ্গবন্ধুই বাংলাদশের স্থপতি। বঙ্গবন্ধু জাতির কাছে অমর। তিনি আমাদের মাঝেই বেঁচে আছেন। তিনি যুগ যুগ ধরে চিরদিন বাঙ্গালির হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন। শুক্রবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আয়োজিত আলোচনা সভা ও ভাইস-চ্যান্সেলর’স এ্যওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপাচার্য এসব কথা বলেন।

শিশুদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবন ও দর্শন চর্চা করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদকে না বলতে হবে। উদযাপন কমিটির আহবায়ক একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আপেল মাহমুদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ গোলাম রব্বানী, সমাজকর্মী মিসেস গুল নাহার নবী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ও অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক বেলাল উদ্দিন।

সভায় বিভিন্ন বিষয়ে প্রবন্ধ লেখক হিসেবে শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থী কেটাগরিতে ‘ভাইস-চ্যান্সেলর’স এ্যওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়। শিক্ষক কেটাগরিতে একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক উমর ফারুক, ছাত্রছাত্রী কেটাগরিতে উইমেন এন্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের ছাত্রী লাইলুন্নাহার ও কর্মচারী কেটাগরিতে পিএ কাম কম্পিউটার অপারেটর হাফিজুর রহমান এই পদক পেয়েছেন।

এছাড়া জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন স্কুলের শিশুদের অংশ গ্রহণে অনুষ্ঠিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ। এর আগে সকাল সাড়ে ৯ টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী এই কর্মসূচি শুরু হয়। পরে ক্যাম্পাসে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশ নেন। শোভাযাত্রা শেষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী। পরে ড. ওয়াজেদ রিসার্চ ইনস্টিটিউট, শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন ও কর্মচারী ইউনিয়েনসহ বিভিন্ন আবাসিক হল ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকেও পুষ্পার্ঘ্য অর্পন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী।

পছন্দের আরো পোস্ট