আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন শেকৃবি’র ড.সাইফুল ইসলাম

প্রাণিজ আমিষ উৎপাদন ও খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সর্ববৃহৎ আর্ন্তজাতিক সম্মেলনভিভ এশিয়া-২০১৭” ও ভিয়েতনামের হ্যানয় এ অনুষ্ঠিতব্য “এশিয়া রিজিওনাল ওয়ান হেলথ এন্ড জুনোসিস” বিষয়ক আর্ন্তজাতিক কর্মশালায় যোগ দিচ্ছেন  শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি) এর মেডিসিন এন্ড পাবলিক হেলথ বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহযোগী অধ্যাপক, আর্ন্তজাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিজ্ঞানী ও বিশিষ্ট পোষা প্রাণি চিকিৎসক ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম।

আগামী ১৫ মার্চ থেকে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য ভিভ এশিয়া-২০১৭ এর বিভিন্ন সভা ও সেমিনারে যোগ দিতে আজ সকালে থাই এয়ারওয়েজের বিমানযোগে ঢাকা ত্যাগ করেছেন তিনি। এর পাশপাশি আগামী ১৬ মার্চ ভিয়েতনামে অনুষ্ঠিতব্য “এশিয়া রিজিওনাল ওয়ান হেলথ এন্ড জুনোসিস” বিষয়ক আর্ন্তজাতিক কর্মশালায় বাংলাদেশে ওয়ান হেলথ, প্রাণি স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং জুনোটিক রোগ-ব্যাধির উপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন তিনি।

উল্লেখ্য যে, শিক্ষা, গবেষণা ও পোষাপ্রাণি চিকিৎসায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম এ পর্যন্ত ৭ বার বিভিন্ন আর্ন্তজাতিক পূরস্কার ও স্বীকৃতি অর্জন করার বিরল গৌরব অর্জন করেছেন। তিনি ২০১৫ইং সালে থাইল্যান্ডে সাসটেইনেবল এনিম্যল এগ্রিকালচার ফর ডেভেলপিং কান্ট্রিজ কর্তৃক” এসএএডিসি-২০১৫ ইয়াং সায়েনটিস্ট এওয়ার্ড”, ২০১৪ইং সালে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনফরমেশন ইনস্টিটিউট, সায়েন্টিফিক রিসার্চ এবং ওপেন এক্সেস লাইব্রেরীর যৌথ উদ্যোগে প্রদত্ত “‘ইয়ং রিসার্চার অ্যাওয়ার্ড-২০১৪” এবং ২০১১ইং সালে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ মাইক্রোবায়োলজিক্যাল সোসাইটি (আইইউএমএস) কর্তৃক প্রদত্ত “এশিয়ান ইয়ং ল্যাব সাইন্টিস্ট অ্যাওয়ার্ড-২০১১’ এ ভূষিত হন। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশের একমাত্র ভেটেরিনারিয়ান হিসেবে পরপর তিন বার ২০১৫ইং সালে তে ভিয়েতনাম ও ফিলিপিনস এ এবং ২০১৬ইং সালে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে “কি ওপিনিয়ন লিডার” এর স্বীকৃতি অর্জন এবং দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে অংশগ্রহন শেষে তিনি আগামী ১৮ মার্চ ২০১৭ইং দেশে ফেরত এসে স্বীয় কর্মস্থলে যোগ দেবেন বলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্রে যানা গেছে।

পছন্দের আরো পোস্ট