ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি’র ৫ম সমাবর্তন

ইস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয় (ইইউ) এর ৫ম সমাবর্তন রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে আজ (১২ ই মার্চ ২০১৭) রোববার অনুষ্ঠিত হয়। রাষ্ট্রপতি ও ইইউ’র চ্যান্সেলরের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। সমাবর্তন বক্তা ছিলেন কানাডার রাষ্ট্রদূত মি. বেনওয়া পিয়ের লাঘামে। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুর রব। বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হান্নান চৌধুরী। বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি অনুষদ থেকে মোট ১৯০১ জন শিক্ষার্থীকে অনুষ্ঠানে সনদপত্র প্রদান করা হয় এবং তাদের মধ্যে ২ জন চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক, ৩ জন চেয়ারম্যান স্বর্ণপদক এবং ৪ জন ভাইস চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক লাভ করেন। অনুষ্ঠানের শেষাংশে শিক্ষার্থীদের মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ব্যান্ড দল ওয়ারফেইজ’র গান পরিবেশন করে।

শিক্ষামন্ত্রী তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই গ্রাজুয়েটদের অভিনন্দন জানান। তিনি উল্লেখ করেন, বর্তমান সরকার সরকারী-বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে বৈষম্য করে না। ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেয়ার প্রস্তুতি নিতে স্নাতকদের প্রতি আহ্বান জানান। ইউজিসি’র চেয়ারম্যান বলেন, ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিকে বাংলাদেশের অন্যতম সেরা মানের বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করার যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে তা বাস্তবায়নের আহবান জানান।

5th Convocation of Eastern Universityসমাবর্তন বক্তা তরুণ গ্রাজুয়েটদের অভিনন্দন জানিয়ে তাদের একটি সুখী, সমৃদ্ধ ও দীর্ঘ জীবন কামনা করেন। শিক্ষার আলোর মাধ্যমে মানবিকতার বিকাশ এবং তাদের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করতে তিনি গ্রাজুয়েটদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি সমসাময়িক শিক্ষা নীতি ও শিক্ষা ব্যবস্থার বিভিন্ন দিক সম্পর্কে কথা বলেন। উপাচার্য অধ্যাপক রব তার উদ্বোধনী বক্তৃতায় গ্রাজুয়েটদের অভিনন্দন জানান এবং তাদের জ্ঞান এবং দক্ষতাকে স্ব-স্ব ক্ষেত্রে ব্যবহার করে দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গড়তে পরামর্শ দেন। অনুষ্ঠানকে সফল করার জন্য তিনি শিক্ষামন্ত্রী, সমাবর্তন বক্তা, ইইউ পরিবারের সদস্য ও অন্যান্য বিশিষ্ট অতিথিদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুল ইসলাম শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদেরকে ইইউ কর্তৃপক্ষের প্রতি তাদের আস্থা রাখার করার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, “শুরু থেকেই ইইউ শিক্ষার মান বজায় রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।” এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, সাংবাদিক ও বিশিষ্ট অতিথিবৃন্দ।

পছন্দের আরো পোস্ট