যথাযোগ্য মর্যাদায় তুরস্কে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

যথাযোগ্য মর্যাদায় তুরস্কে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন অনু্ষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তুরস্কের ন্যাশনাল লাইব্রেরী অডিটোরিয়ামে  বাংলাদেশ দূতাবাস আলোচনা সভার আয়োজন করে। প্রবাসী বাঙালীদের অংশগ্রহণে অডিটোরিয়ামটি তুরস্কের বুকে এক টুকরো বাংলাদেশে পরিণত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাজিত্তেপে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেকটর প্রফেসর ড. আ. হালুক ওজেন। বিশেষ  অতিথি ছিলেন তুরস্কের সংস্কৃতি, ভাষা ও ইতিহাস বিষয়ক  আতাতুর্ক সুপ্রিম কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ড. ডেরয়া ওর্স। এ সময় আনকারাস্থ বিভিন্ন দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত এবং কূটনৈতিক, শিক্ষাবিদ, সংবাদ প্রতিনিধি ও প্রবাসী বাংলাদেশীরা উপস্থিত ছিল।

প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. আ. হালুক ওজেন বিশ্বের  বিভিন্ন দেশের সমন্বয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৭ আয়োজন করায় আনকারাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং আধুনিক তুরস্কের জনক মোস্তফা কামাল আতাতুর্ককে শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করেন।

তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম. আল্লামা সিদ্দিকী স্বাগত বক্তব্যে সকল ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধুর অসামান্য অবদানের কথা উল্লেখ করে তিনি তার বিদেহী আত্মার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে মোট সাতটি ভাষায় বিভিন্ন উপস্থাপনা করা হয়।অংশগ্রহণকরী দল ও দূতাবাসগুলো হল-  আনকারা স্টেট ক্লাসিকাল টারকিশ মিউজিক কোয়ার্স , বাংলাদেশ, ব্রাজিল, ইন্দোনেশিয়া, কুয়েত, কঙ্গো, কিরগিজিস্তান ও ডেনমার্ক। অনুষ্ঠান শেষে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাবার পরিবেশন করা হয়।

পছন্দের আরো পোস্ট