ড্যাফোডিলের লোকবক্তৃতায় রোকেয়া আফজাল রহমান

তরুণ উদ্যোক্তাদের গ্রামভিত্তিক উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেশন অব উইমেন এন্ট্রাপ্রেনার্স এর চেয়ারম্যার রোকেয়া আফজাল রহমান। আজ শনিবার (৪ ফ্রেব্রুয়ারি) ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশ ইউনিভার্সির ইনোভেশন অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার আয়োজিত লোকবক্তৃতা সিরিজের ৭ম পর্বের প্রধান বক্তার বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

রোকেয়া আফজাল রহমান বলেন, ‘উদ্যোক্তা হিসেবে সফল হতে হলে দুটি বিষয়ের প্রতি গুরুত্ব দেওয়া উচিত। প্রথমত, কঠোর পরিশ্রম এবং দ্বিতীয়ত মানুষের সঙ্গে ভালো ব্যবহার। সকল ক্লায়েন্ট সমানভাবে গুরুত্ব¡ দিতে হবে এবং সবার কথা মনোযোগ দিয়ে শুনতে হবে।’ এসময় তিনি নারী শিক্ষার্থীদের উদ্যোক্তাদের পথে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানান।

নারী উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার পেছনে কারণ হিসেবে তিনি বলেন, নারীরা আয় করলে শতভাগ পরিবারে বিনিয়োগ করেন। অপরদিকে পুরুষ আয় করলে শতভাগ পরিবারেরর পেছনে ব্যায় করতে পারেন না। কারণ পুরুষদের নিজস্ব কিছু ব্যায় রয়েছে যা নারীর নেই। এরপর শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রশ্নত্তোর পর্বে অংশ নেন রোকেয়া আফজাল রহমান।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভার্সিটির ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান, বিশবিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ এম ইসলাম ও ইনোভেশন এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের পরিচালক মোঃ আবু তাহের খান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক (স্টুডেন্ট এফেয়ার্স) সৈয়দ মিজানুর রহমান। অনুষ্ঠানে রোকেয়া আফজাল রহমান শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

সবশেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান ‘বাংলাদেশ ফেডারেশন অব উইমেন এন্ট্রাপ্রিনিউরশীপ’ (ইঋডঊ) এর সভাপতি রোকেয়া আফজাল রহমানের হাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মাননা স্মারক তুলে দেন। ‘বাংলাদেশ ফেডারেশন অব উইমেন এন্ট্রাপ্রিনিউরশীপ’ (ইঋডঊ) এর সভাপতি রোকেয়া আফজাল রহমান তার বক্তৃতায় দীর্ঘ সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে আজকের এ সাফল্যের শিখরে উঠে আসার কাহিনী শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে দেশের শিল্প ও ব্যাবসাখাতের নেতৃবর্গ, অর্থনীতিবিদ, শিক্ষক, গবেষক ও নাগরিক সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়েরে ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. সবুর খান বলেন, সফল উদ্যোক্তাদের গল্প শুনে আজকের তরুণরা যাতে উদ্যোক্তা হওয়ার অনুপ্রেরণা পায় সেই উদ্যেশ্যেই এই লেকচার সিরিজের আয়োজন। এসময় তিনি সেরা প্রশ্নকারী হিসেবে ছয় শিক্ষার্থীর প্রত্যেককে ১ হাজার টাকা করে তাৎক্ষণিক পুরস্কার ঘোষণা করেন। এই পুরস্কার ব্যবস্থা প্রতিটি লেকচার অনুষ্ঠানে চালু থাকবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, আমন্ত্রিত এই ১২ জন সফল উদ্যোক্তার বক্তৃতাগুলো নিয়ে পরবর্তী সময়ে একটি বই প্রকাশিত হবে, যা বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের ব্যবসা, অথনীতি ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোর শিক্ষার্থীদের জন্য রেফারেন্স বই হিসেবে ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি করবে।এই ১২ জন উদ্যোক্তার ওপর ডিআইইউ থেকে ১২টি প্রামাণ্যচিত্রও নির্মিত হবে। 

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভার্সিটি আশা করছে যে, এ লোকবক্তৃতামালা নতুন প্রজন্মের সৎ, শিক্ষিত ও মেধাবী উদ্যোক্তাদেরকে সাহস, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে সামনে এগিয়ে যেতে সাহায্য ও অনুপ্রাণিত করবে। উদ্যোক্তা উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ তার সম্ভাবনার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ গতিতে এগুতে পারছে না বলে যে ধারণা চালু রয়েছে, এ লোকবক্তৃতামালা, সে সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে ওঠতে অনেকখানি সাহায্য করবে আশা করা যায়।

পছন্দের আরো পোস্ট