নর্দানে উচ্চশিক্ষার মূলনীতি বিষয়ে কর্মশালা

নর্দান ইউনিভার্সিটির ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স সেল (আইকিউএসি) বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার মান উন্নয়নের জন্য বিশ্বব্যাংক এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন এর সহায়তায় দিন ব্যাপী ‘উচ্চ শিক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের ভুমিকা, দায়িত্ব ও নৈতিক মুলনীতি’ সম্পর্কীত ওয়ার্কসপ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. এ.ডব্লিউ.এম আব্দুল হক।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ারুল করীম, ট্রেজারার মোঃ আনোয়ার হোসাইন, রেজিস্ট্রার লে.কর্ণেল একতেদার আহমদ সিদ্দিকী (অবঃ), কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স বিশেষজ্ঞ ও ঘটই ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স এর পরিচালক প্রফেসর ড.এম. শামসুল হক।

ওয়ার্কসপে অংশগ্রহন করেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর বিভিন্ন অনুষদের লেকচারার, সিনিয়র লেকচারার ও এসিসট্যান্ট প্রফেসরবৃন্দ। ওয়ার্কসপটি সার্বিকভাবে পরিচালনা করেন কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স বিশেষজ্ঞ ও ঘটই ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স সেল এর অতিরিক্ত পরিচালক জনাব জিল্লুর রহমান ।

অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর এই উদ্যোগ কে স্বাগত ও প্রশংসা করেন। তাঁরা বলেন, ওছঅঈ এর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিশ্ববিদ্যায়ের শিক্ষকদের কোয়ালিটির পাশাপাশি শিক্ষার গুনগত মানের উন্নয়ন সম্ভব এবং সে লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ।

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. এ.ডব্লিউ.এম আব্দুল হক বলেন, আমাদের পিছিয়ে পড়া জাতিকে এগিয়ে নিতে হলে নিয়মিত প্রশিক্ষণ ও গবেষণায় এগিয়ে আসতে হবে। তাহলে দেশ এগিয়ে যাবে। আর এ প্রত্যয় নিয়ে কাজ করতে তিনি তরুন শিক্ষকদের প্রতি আহবান জানান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর বিভিন্ন অনুষদের ডীন,বিভাগীয় প্রধান ।##

পছন্দের আরো পোস্ট