প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিবের খুবি ক্যাম্পাস পরিদর্শন

KU LOGOপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত সচিব-২ ড. নমিতা হালদার আজ বিকেল ৩ টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় সফর করেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় পৌঁছে উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামানের সাথে তাঁর কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নে গৃহীত বিভিন্ন প্রকল্পের অগ্রগতিসহ কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে অবহিত হন।

Post MIddle

উপাচার্য খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে সফরের জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানান। সম্প্রতি একনেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে ১৮৮ কোটি টাকারও বেশি ব্যয় সাপেক্ষ উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেওয়ায় তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা পুনর্ব্যাক্ত করে বলেন নতুন এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে আগামী ১০-১৫ বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামোর তেমন কোনো সংকট থাকবে না। তবে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষি সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি ডিসিপ্লিন থাকায় মাঠ গবেষণাগার এবং ভবিষ্যত সম্প্রসারণের জন্য আরও জমির প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেন। পরে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাপ্ত উন্নয়ন প্রকল্পের বিভিন্ন অবকাঠামো এবং নতুন উন্নয়ন প্রকল্পের সাইট ঘুরে দেখেন।

এছাড়া তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের জলাবদ্ধতার অন্যতম কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ের খানবাহাদুর আহছানউল্লা হল সংলগ্ন বিশ্ববিদ্যালয় লেকের শেষ অংশের পূর্বে বাইরে ময়ূর নদীর সংযোগ স্থলটিতে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের পূর্ব-দক্ষিণ কোনায় পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গায় গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনার কারণে সৃষ্ট সমস্যাগুলো সরেজমিনে দেখেন।

এছাড়াও তিনি গল্লামারী-জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত প্রস্তাবিত ওয়াকওয়েসহ শহীদ স্মরণী নির্মাণের সম্ভাব্য এলাকাটি দেখেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুন্দর পরিবেশ ও অব্যাহত উন্নয়নে আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং জলাবদ্ধতা নিরসনে এবং বঙ্গবন্ধু হলের সামনে অবৈধ স্থাপনা অপসারণের বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস ব্যক্ত করেন।

এ সময় রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) টিপু সুলতান, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুল মান্নান, প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আতিয়ার রহমান, উপাচার্যের সচিব উপ- রেজিস্ট্রার হাওলাদার আলমগীর হাদী, ট্রেজারারের সচিব দীপক চন্দ্র মন্ডলসহ রেজিস্ট্রার দপ্তরের বিভিন্ন শাখার প্রধান ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পছন্দের আরো পোস্ট