বিশ্ববিদ্যালয় দিবসে কুয়েটে বিভিন্ন কর্মসূচি

3564_kuetআগামী বৃহস্পতিবার (০১ সেপ্টেম্বর)  খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) এর ত্রয়োদশ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে। দিনটিকে স্মরণীয় করতে সাজছে পুরো বিশ্ববিদ্যালয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এম.পি. এবং সভাপতিত্ব করবেন খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর।

বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে সকাল ১০ টায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে প্রীতি সমাবেশ, সাড়ে ১০টায় জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের উদ্বোধন, ১০:৪৫ টায় আনন্দ শোভাযাত্রা, ১১:১৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবিত বিভিন্ন প্রজেক্ট প্রদর্শনী, ১১:২০টায় টেকনিক্যাল পেপার প্রেজেন্টেশন, ১১:৪০ টায় আলোচনা সভা, ০১:১০টায় নবনির্মিত লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং ভবন ও গেস্ট হাউজ কাম ক্লাব ভবনের উদ্বোধন, ৩টায় দর্শনার্থীদের জন্য বিভিন্ন বিভাগের ল্যাবসমূহ উম্মুক্তকরণ, সোয়া ৩টায় শিক্ষকদের সাথে প্রধান অতিথির মত বিনিময়, ৪টায় ছাত্র-শিক্ষক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, বাদ আছর দোয়া মাহফিল ও সন্ধায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানকে সফল করতে যন্ত্রকৌশল অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. তারাপদ ভৌমিককে সভাপতি এবং সহকারী পরিচালক (ছাত্র কল্যাণ) মোঃ উসমান গণি নাঈমকে সদস্য সচিব করে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদ্যাপন কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক এবং বিভিন্ন শাখা ও বিভাগের কর্মকর্তাবৃন্দ।

১৯৬৭ সালে খুলনা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলেও ১৯৭৪ সালে একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয়। ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ ইনষ্টিটিউট অব টেকনোলজী (বিআইটি), খুলনা। পরবর্তীতে এই প্রতিষ্ঠান ২০০৩ সালের ০১ সেপ্টেম্বর প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরিত হয়। যাত্রা শুরু হয় খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের।##

পছন্দের আরো পোস্ট