বাকৃবির ৫৬তম প্রতিষ্ঠা দিবস আজ

BAU Nice Pic5বাংলাদেশ কৃষি প্রধান দেশ। এ দেশের কৃষ্টি, সংস্কৃতি, অর্থনীতির মূল ভিত্তিই হচ্ছে কৃষি।দেশের মানুষের খাদ্য চাহিদা পূরণ ও দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে ১৯৬১ সালের ১৮ আগস্ট গড়ে তোলা হয় দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার উচ্চতর কৃষি শিক্ষা ও গবেষণার অন্যতম বিদ্যাপীঠ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি)।বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৬তম প্রতিষ্ঠা দিবস।

জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বর্ণাঢ্য র‌্যালি, বৃক্ষরোপণ ও চারা বিতরণ, মাছের পোনা অবমুক্তকরণসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপন করছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

প্রতিষ্ঠা দিবস সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলী আকবর বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের জনসংখ্যা ছিল প্রায় সাড়ে সাত কোটি। তখন প্রতি বছর দেশে ছিল প্রচণ্ড খাদ্যাভাব। ক্ষুধা-দুর্ভিক্ষে মারা গেছে অসংখ্য মানুষ। ২০১৬ সালে জনসংখ্যা ১৬ কোটির ঘরে। কৃষি জমির পরিমাণ  কমেছে। তারপরও বাংলাদেশ আজ খাদ্যে প্রায় স্বয়ংসম্পূর্ণ। আর এ সাফল্যে সবচেয়ে বড় অবদান রেখেছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

বাউকুল, শুকানো পদ্ধতিতে বোরো ধান চাষ, একায়াপনিক্স এর মাধ্যমে মাছ এবং সবজি উৎপাদন, তারা বাইন, গুচিবাইন ও বাটা মাছের কৃত্রিম প্রজননসহ বহু গবেষণায় বাকৃবির সাফল্য রয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

পছন্দের আরো পোস্ট