বন্যার্তদের পাশে ইবি শিক্ষার্থীরা

“মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য” বহুল প্রচলিত এই দর্শনে উদ্বুদ্ধ হয়ে এবার বন্যা পীড়িতদের জন্য সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বন্যা দূর্গত নীলফামারির প্রত্যন্ত অঞ্চলে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে গিয়ে দাড়িয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বৃহত্তর রংপুর ছাত্র কল্যাণ সমিতি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে তা বন্যা দুর্গতদের জন্য ব্যবহার করছেন এই উদ্যোমী শিক্ষার্থীরা।

গাইবান্ধা ছাত্রকল্যাণ সমিতির সভাপতি রাশেদুন্নবী রাশেদ জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করা হয়েছে। বৃহত্তর রংপুর ছাত্রকল্যাণ সমিতির উদ্যোগে অর্থ সংগ্রহের কর্মসূচী হাতে ছাত্ররা। গত দুই সপ্তাহ ধরে বৃহত্তর রংপুর ছাত্রকল্যাণ সমিতির কর্মীরা নিরলস পরিশ্রম করে অর্থ সংগ্রহের কাজ করেছে।

রংপুর ছাত্রকল্যাণ সমিতির সভাপতি মিফফাদ রহমান রিওন জানান-‘বন্যার্ত মানুষের পাশে দাড়াতে পেরে আমরা তুষ্ট নই, আমাদের আরো অনেক কিছু করার ছিল। কিন্তু ছাত্র বয়সের নানা সীমাবদ্ধতার কারণে তা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। সাধ থাকলেও স্বাধ্য নেই আর কি। তবুও আমরা চেষ্টা করেছি।’ এছাড়া দেশের সকলকে তার নিজ নিজ জায়গা থেকে বন্যার্ত অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

অর্থ সংগ্রহ কমিটির তত্বাবধায়ক ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আরমিন খাতুন বলেন-‘নীলফামারী জেলার ডিমলা থানার বন্যা কবলিত প্রায় তিন শত পরিবারের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রংপুর জেলা ছাত্রকল্যাণ সমিতি, গাইবান্ধা ছাত্রকল্যাণ সমিতি, নীলফামারী ছাত্রকল্যাণ সমিতি ও কুড়িগ্রাম ছাত্রকল্যাণ সমিতির ছাত্রদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে আমরা বন্যার্তদের পাশে এসে দাড়াতে পেরেছি।’

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১০ সদস্যের ত্রান সামগ্রীবাহী টিমের পরিচালক প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান বলেন-‘শিক্ষার্থীরা মানবতার সেবাই যে ভাবে এগিয়ে এসেছে তা নজিরবিহীন। নীলফামারীর বন্যা কবলিত মানুষের মাঝে গিয়ে ছাত্ররা যেভাবে কাজ করেছে তা দেখে আমি মুগ্ধ।’

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বৃহত্তর রংপুর জেলা ছাত্রকল্যাণ সমিতির উদ্যোগে অর্থ সংগ্রহের কাজ করা হয়। অর্থ সংগ্রহ শেষে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ত্রান সামগ্রী নিয়ে তা তিন শ পরিবারের মাঝে বিতরণ করে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ত্রান বিতরণে উল্যেখযোগ্য ভুমিকা পালন করেন স্থানীয় ইউপি সদস্য রমজান আলী, বিশ্ববিদ্যালয়ের গাইবান্ধা ছাত্রকল্যাণ সমিতির সভাপতি রাশেদুন্নবী রাশেদ, ত্রাণ সংগ্রহ কমিটির আহ্বায়ক আশিকুর রহমান, সদস্য জুলফিকার আলী ভুট্টো, মিলন ও সাজ্জাদ হোসেন।

পছন্দের আরো পোস্ট