নর্থ সাউথ ইউনির্ভাসিটিতে শোক দিবস পালন

যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে নর্থ সাউথ ইউনির্ভাসিটিতে জাতীয় শোক দিবস পালিত। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তিন দিনব্যাপী ব্যাপক কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল মোমবাতি প্রজ্বালন, পুষ্পস্তবক অর্পণ, জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো পতাকা উত্তোলন, কালোব্যাচ ধারন, স্থিরচিত্র ও তথ্যচিত্র প্রদর্শন, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং দোয়া মাহফিল।

১৪ আগস্ট রাত ৮টায় মোমবাতি প্রজ্বালনের মাধ্যমে তিন দিনের কর্মসূচী শুরু হয়। এতে শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশগ্রহন করেন। ১৫ আগষ্ট সকাল ৭টায় ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দ্বিতীয় দিনের কর্মসূচির শুরু হয়।

বিকাল ৩টায় এনএসইউ মিলনায়তনে উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে শোক দিবসের মূল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আবদুল মুহিত। প্রধান আলোচক ছিলেন বিশিষ্ট লেখক, শিক্ষাবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এমেরিটাস ড. আনিসুজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন এনএসইউ ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান জনাব আজিম উদ্দিন আহমেদ, বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সদস্য সচিব শেখ হাফিজুর রহমান, লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অবঃ) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির (বীর প্রতীক), সাবেক রাষ্ট্রদূত ও জাতিসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি ডঃ আব্দুল মোমেন। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক-কর্মকর্তা এবং শিক্ষার্থীবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় সংগ্রামী জীবনের উপর বিশেষ স্থিরচিত্র ও তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এরপর ছাত্র-ছাত্রীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

তিন দিনের ধারাবাহিক কর্মসূচীর শেষ দিনে ১৬ আগস্ট “বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও জাতীয় সংহতি” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এবং বিশেষ অতিথি থাকবেন বাংলা একাডেমীর মহা-পরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান, বৈদেশিক নীতি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ডা. দীপু মনি। #

পছন্দের আরো পোস্ট