বেরোবিতে শোক দিবসের আলোচনা

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী বলেছেন, ১৫ আগস্ট জাতির সবচেয়ে শোকের দিন। কারণ, ১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়। তবে এই শোককে শক্তিতে রুপান্তরিত করে দেশের উন্নয়নে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

সোমবার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সভায় বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তাজুল ইসলাম, বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন মোঃ ফেরদৌস রহমান, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইব্রাহীম কবীর প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের বিভিন্ন বিষয়ে চার কেটাগরিতে ভাইস-চ্যান্সেলর’স এওয়ার্ড দেওয়া হয়। প্রতিযোগিতায় শিক্ষকদের মাঝে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান, কর্মকর্তাদের মাঝে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন অর্থ ও হিসাব দপ্তরের সহকারী পরিচালক হারুন তাজিফ জয়, শিক্ষার্থীদের মাঝে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন বাংলা বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণির ছাত্রী যীন্নাতুন্নেছা এবং কর্মচারীদের মাঝে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন সহকারী স্টোর কিপার শিরিনা আক্তার।

পরে বিজয়ীদের হাতে সম্মানা স্মারক ‘ভাইস-চ্যান্সেলর’স এওয়ার্ড’ এবং নগদ অর্থ সম্মানী তুলে দেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী। এর আগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকাল সাড়ে ৯টায় ক্যাম্পাসে শোক র‌্যালি শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে উপাচার্যের নেতৃত্বে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।##

পছন্দের আরো পোস্ট