তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনির স্মরণসভা শনিবার

DUFS logo
DUFS logo

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ আগামী (১৩ আগস্ট, ২০১৬) শনিবার সন্ধ্যা ৬.৩০ ঘটিকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের পার্শ্বস্থ সড়ক দুর্ঘটনা স্মৃতিস্থাপন চত্বরে অকালপ্রয়াত চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ ও প্রখ্যাত চিত্রগ্রাহক মিশুক মুনীর স্মরণে এক স্মরণসভা, মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বালন ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করতে যাচ্ছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সঞ্চালক অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. অধ্যাপক এ যে এম শফিউল আলম ভুইঁয়া এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন ও ফিল্ম বিভাগের চেয়ারম্যান জুনায়েদ আহমদ হালিম। উক্ত অনুষ্ঠান সঞ্চালনার দায়িত্বে থাকছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসাদুল্লাহ চিশতী কানন। এছাড়াও উপস্থিত থাকছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি আলী হায়দার সাগর।

১৩ আগস্ট সন্ধ্যা ৬.৩০ ঘটিকায় অনুষ্ঠিত আয়োজনের শুরুতেই থাকছে প্রয়াত এই দুই চলচ্চিত্রকর্মীর স্মরণে আয়োজিত স্মরণসভা। এরপরে মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বালন করা হবে। সবশেষে থাকছে তারেক মাসুদ নির্মিত চলচ্চিত্রগুলির প্রদর্শনী। এই তালিকায় আছে রানওয়ে, ফেরা ও নরসুন্দরের মত নন্দিত চলচ্চিত্রকর্ম। এছাড়াও একই সাথে প্রদর্শিত হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ ও তারেক মাসুদ সম্পর্কিত ছবিগুলি নিয়ে নির্মিত স্লাইড শো, ‘বিনি সুতোয় গাঁথা’।

উল্লেখ্য, তারেক মাসুদ(১৯৫৬-২০১১) একাধারে ছিলেন স্বাধীন চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, চিত্রনাট্যকার, লেখক ও গীতিকার। তাঁর নির্মিত ফিচার চলচ্চিত্র মাটির ময়না(২০০২) এর জন্য তিনি কান চলচ্চিত্র উৎসবে ডিরেক্টর ফোর্টনাইটসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক খ্যাতি লাভ করেন। এছাড়া এটি বাংলাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র হিসেবে একাডেমিক পুরস্কারে সেরা বিদেশী ভাষার চলচ্চিত্র হিসেবে মনোনীত হয়েছিল। তার অন্যান্য বিখ্যাত চলচ্চিত্রের মাঝে আছে অন্তর্যাত্রা(২০০৬), আদম সুরত(১৯৬৯), মাটির ময়না(২০০২), মুক্তির গান(১৯৯৬) ও রানওয়ে(২০১০)।

গুণী এই চলচ্চিত্র নির্মাতা তাঁর ‘কাগজের ফুল’ নামক চলচ্চিত্রের জন্য লোকেশন চিত্রায়নের কাজ থেকে ফেরার পথে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। এসময় তাঁর সাথে ছিলেন তাঁর দীর্ঘদিনের সহকর্মী, বাংলাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সাংবাদিক, সম্প্রচার কিংবদন্তী, টেলিভিশন সাংবাদিকতার পথিকৃত ও বিশিষ্ট চিত্রগ্রাহক মিশুক মুনীর(আশফাক মুনীর চৌধুরী)। দুর্ঘটনায় তারেক মাসুদ ছাড়াও মিশুক মুনীর ও আরো তিনজনের মৃত্যু হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ প্রায় ছয় দশক ধরে দেশের চলচ্চিত্র সংসদ আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। ডাকসু অনুমোদিত স্বেচ্ছাসেবী এই সংগঠনটি ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশ এর গর্বিত সদস্যও বটে। দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক সংগঠনটির প্রধান সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।#

পছন্দের আরো পোস্ট