রাবির নিরাপত্তায় আনসার বাহিনী

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সর্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রক্টররিয়াল বডি, পুলিশ ও প্রহরীদের পাশাপাশি এবার আনসার ব্যাটালিয়ন সদস্যদেরকে মোতায়েন করা হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মজিবুল হক আজাদ খান জানান, আগামী আগস্ট মাস থেকে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন পয়েন্টে আনসার সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন।

 

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর দফতর সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বশেষ (৪৬৪তম) সিন্ডিকেট বৈঠকে ক্যাম্পাসে নিরাপত্তায় আনসার সদস্যদের মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম পর্যায়ে পাইলট প্রকল্প হিসেবে ৩০ জন আনসার সদস্যকে মোতায়েন করা হবে। ক্যাম্পাসের অন্তত ৭-৮টি পয়েন্টে ২৪ ঘণ্টা প্রহরায় থাকবেন তারা। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নিয়োগ পাওয়া প্রহরীদের সঙ্গেই এসব আনসার সদস্যরা কাজ করবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফান্ড থেকে তাদের বেতন-ভাতার ব্যবস্থা করা হবে।

 

Post MIddle

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি ফটক ও ভবনে প্রহরী নিয়োগ দেয়া আছে। এদের অনেকেই বিএনপি-জামায়াত সরকারের শাসনামলে নিয়োগপ্রাপ্ত। অভিযোগ আছে, ক্যাম্পাসে শিবিরের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে এসব প্রহরীর সহযোগিতা থাকে। ক্যাম্পাসের সামগ্রিক নিরাপত্তায় শুধু এসব প্রহরীর ওপর আর নির্ভর করতে পারছে না বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তাই এসব প্রহরীদের সঙ্গে নিরস্ত্র আনসার সদস্যদের নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

 

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বলেন, ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার জন্য বিভিন্ন ফটকে বা ভবনে যেসব প্রহরী কাজ করছে তারা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছে না। তাই আনসার সদস্য মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আনসার বাহিনীর ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিদের সঙ্গে যোগাযোগও করা হয়েছে। আগামী মাস থেকে ক্যাম্পাসে প্রথম পর্যায়ে ৩০ জন আনসার দায়িত্ব পালন করবেন।’

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে দিন-রাত ক্লাস, পরীক্ষা, গবেষণা এবং বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে মুখরিত থাকবে এটাই আমরা চাই। কিন্তু ক্যাম্পাসের নিরাপত্তা অনেকাংশে বাড়লেও নির্বিঘ্ন হয়নি। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট ক্যাম্পাসে আনসার সদস্য মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।##

পছন্দের আরো পোস্ট