ঢাবিতে শিক্ষার্থী উদ্যোক্তা অভিজ্ঞতা বিনিময়

Pic. on Seminarঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক মেধা, শ্রম ও অধ্যবসায়ের মাধ্যমে দারিদ্রকে জয় করার জন্য অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেও পৃথিবীতে অনেকেই বিখ্যাত ব্যক্তিত্বে পরিণত হয়েছেন।

 

সোমবার (৩০ মে ২০১৬) বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের কনফারেন্স রুমে ‘উদ্যোক্তাদের অভিজ্ঞতা বিনিময়’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তরুণ প্রজন্মকে উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিভাগের পলিসি রিসার্চ অন বিজনেস এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

 

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিভাগের চেয়ারপার্সন ড. চৌধুরী সায়মা ফেরদৌসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সফল ব্যবসায়ী মো: আবদুল ওয়াদুদ এমপি সফল উদ্যোক্তা হিসাবে তার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন। বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমান স্বাগত বক্তব্য দেন।

 

Post MIddle

উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ভারতের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এ পি জে আবদুল কালামের উদাহরণ তুলে ধরে বলেন, তিনি অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ছাত্র জীবনে তাঁর পায়ে জুতাও থাকত না। মেধাকে যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে শ্রম ও আত্মবিশ্বাসের মাধ্যমে তিনি ভারতের রাষ্ট্রপতি তথা একজন সফল ব্যক্তিত্বে পরিণত হতে পেরেছিলেন। কোন মেধাবীর সফলতা অর্জনের পথে দারিদ্র প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারেনা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সফল ব্যক্তিত্বদের দৃষ্টান্ত অনুসরণ করে তরুণ প্রজন্মকে গড়ে ওঠতে হবে।

 

বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সফল ব্যবসায়ী মো: আবদুল ওয়াদুদ এমপি তার জীবনের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বলেন, চাকরিজীবীদের পক্ষে সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করার সুযোগ কম থাকে। তাই চাকুরির পেছনে না ছুটে মেধাবী শিক্ষার্থীদের উদ্যোক্তা হওয়া উচিৎ। ##

 

লেখাপড়া২৪.কম/এমএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট