শিক্ষক লাঞ্ছনার প্রতিবাদে ছাত্র ফেডারেশনের প্রতিবাদ সমাবেশ

34dcca81-5420-4e3c-8c9c-6d5cf2ab3cd8
বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে নারায়ণগঞ্জের ওসমান পরিবারের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিচার চেয়েছেন শিক্ষার্থীরা। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্যোগে এই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
ছাত্র ফেডারেশন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক তাহসিন মাহমুদের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি রায়হান তাহরাত লিয়ন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি উম্মে হাবীবা বেনজির, বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) এর ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি অলিক মৃ। সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক উৎসব মোসাদ্দেক।
Post MIddle
উম্মে হাবীবা বেনজির বলেন, বাঁশখালীতে গুলি করে মানুষ হত্যা করে এখন আবার তাদের উপরেই মামলা দিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে ওসমান পরিবার। এরাই এর আগে হত্যা করেছে তানভীর মুহাম্মদ ত্বকিকে। সংসদে এই পরিবারকে নিরাপত্তা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। এভাবেই রাষ্ট্রীয় মদদে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালিত হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জের সন্ত্রাসী ক্যাঙ্গারু পারভেজকে যেভাবে ছাত্র সমাজ বিতাড়িত করেছিল সেভাবে এই গডফাদারদের প্রতিহত করার আহবান জানান তিনি।
রায়হান তাহরাত লিয়ন বলেন, আমাদের শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে কানে ধরে উঠবস করানোর পর অনেকে ফেসবুকে কানে ধরে ছবি আপলোড করছেন। তাকে বরখাস্ত করার পর এখন সন্ত্রাসী সংসদ সদস্যকে বরখাস্ত করে উৎখাত করার সময় এসেছে।
সভাপতির বক্তব্যে উৎসব মোসাদ্দেক বলেন, বাংলাদেশের মানুষের প্রতিদিনের জীবনকে ভয়াবহ অপমান-নিগ্রহের মধ্য দিয়ে নিয়ে যাচ্ছে স্বৈরাচারি সরকার। ক্ষমতার দাপটে অন্ধ হয়ে বিরুদ্ধ মত দমনে ফ্যাসিস্ট আচরণ করে রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে দলীয় পেটোয়া বাহিনীতে পরিণত করা হয়েছে। শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে লাঞ্ছিত করে সরকার ও তার পুতুল বিরোধী দলের অন্যায়ের তালিকা কিছুমাত্র দীর্ঘ হয়েছে। তিনি বলেন, ক্রমাগত এই অন্যায়ের প্রতিবাদে জনতাকে সাথে নিয়ে রাজপথে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে পরিবর্তনের নতুন বাংলাদেশ গঠনের দায়িত্ব ছাত্রসমাজের।
পছন্দের আরো পোস্ট