রাজশাহীতে অ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ুথ সামিট

AC_Summit_16_01তরুণ যুবাদের ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা, ইতিবাচক কাজে অংশ নেয়ার শপত গ্রহণ, মুক্ত সংলাপ, সেমিনার, হার্ড টক, পজেটিভ ক্যাম্পেইন ও নাচ গানের মধ্যে দিয়ে বুধবার রাতে রাজশাহীতে শেষ হয়েছে এ্যাকটিভ সিটিজেনস রিজিওনাল এচিভারস সামিট।

 

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের গ্রিন প্লাজায় ব্রিটিশ কাউন্সিলের এ্যাকটিভ সিটিজেন্স প্রকল্পের আওতায় এই সামিট আয়োজন করে সিসিডি বাংলাদেশ। বুধবার সকালে এই সামিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পারভেজ রাহয়ান, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ওসমান গনি তালুকদার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা প্রফেসর আরেফিন মাতিন, ব্রিটিশ কাউন্সিলের প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর আব্দর সবুর, দি হাঙ্গার প্রজেক্টের এরিয়া কো-অর্ডিনেটর সুব্রত পাল, সিসিডি ও রেডিও পদ্মা’র যুগ্ম পরিচালক শাহানা পারভীন প্রমূখ।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন, তরুণ যুবাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সুখি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার অঙ্গিকার নিয়ে কাজ করে যেতে হবে। তবেই সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে ও দেশ এগিয়ে যাবে সমৃদ্ধির দিকে।

 

সামিটের মুক্ত আলোচনায় প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক হাসান আজিজুল বলেন, সকল নেতীবাচক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে তরুণ যুবাদের প্রতিবাদ করতে হবে এবং প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। তবেই দেশ ইতিবাচক দিকে এগুবে এবং মুক্তচিন্তার পথ প্রস্থত হবে।

 

হার্ড টকে অংশ নিয়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র এ. এইচ. এম. খায়রুজ্জামান লিটন বলেন এবং দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র নিযাম উল আজিম বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকান্ডকে বেগমান করার জন্য তরুণ যুবাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। হার্ড টকটি সঞ্চালনা করেন যমুনা টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান শিবলী নোমান।

 

অপর একটি হার্ডটকে রাজশাহী মহানগর পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার সরদার তমিজ উদ্দীন আহমেদ বলেন, তরুণরা সামাজিক নেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলে সকল সামাজিক বঞ্চনা প্রতিরোধ ও শান্তি প্রতিষ্ঠার পথ প্রস্তস্থ হবে।

 

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুক্তরাজ্যে নিয়ুক্ত সাবেক বাংলাদেশী হাই কমিশনার ও বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. এম. সাইদুর রহমান খান বলেন, দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য তরুণদের সামাজিক নেতৃত্ব গ্রহণ করতে হবে।

 

সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনেরদায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র নিযাম উল আজিম, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রফেসর এম. সাইদুর রহমান খান, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান, বিএনসিসি-এর মহাস্থান রেজিমেন্টের কমান্ডার কর্নেল কে. এম. ইমাম আহসান, সিসিডি’র পরিচালক জি. এম. মুরতুজা প্রমূখ।

 

দিনব্যাপী এই সামিটে দু’টি সেমিনার, মুক্ত আলোচনা, হার্ড টক, বির্তক এবং মনোঙ্গ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দুই সহস্রাধিক তরুণ যুবা ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনার সাথে অংশগ্রহণ করে। এছাড়া এ্যাকটিভ সিটিজেনস প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষিত তরুণদের নেতৃত্বে বাস্তবায়নাধীন ১৮ টি সোস্যাল এ্যাকশন প্রজেক্টের প্রদর্শনীতে দিনব্যাপী ছিল দর্শকদের উপচে পড়া ভিড়।

 

সন্ধ্যায় সমাপনী অনুষ্ঠানে বেস্ট সোস্যাল এ্যাকশন প্রজেক্ট প্রদর্শণীতে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান ছাড়াও বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান, কমেডি শো, র‌্যাম্প, নাচ, বাউল শো ও ওপেন কনর্সাট অনুষ্ঠিত হয়। বাউল শোয়ে লোকজ সঙ্গিত পরিবেশন করেন বরেণ্য শিল্পী মশিউর রহমান রিংকু এবং কনসার্ট পরিবেশন করেন ব্যান্ড আরশি।#

 

 

লেখাপড়া২৪.কম/আরএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট