তনু হত্যার প্রতিবাদে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ

image-1054সোহাগী জাহান তনুর মৃতদেহের ময়নাতদন্ত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করাসহ তিন দফা দাবিতে মানববন্ধন, রাস্তা অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ। বুধবার দুপুর ১২ টায় ধানমন্ডির ২৭ এর নো ভ্যাট চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। এ সময় স্টামফোর্ড, ইউআইইউ, ইউডা, ড্যাফোডিল ও ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিসহ ধানমন্ডির সকল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

 

দ্বিতীয় দফা দাবিতে অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে অপরাধীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় এনে মৃত্যুদ- দেয়ার দাবি জানান বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পক্ষে ফারুক আহমাদ আরিফ। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে মা সম্বোধন করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাদের মায়ের সমতুল্য। আর মায়ের কাজ হচ্ছে সন্তানের নিরাপত্তা দেয়া। বর্তমানে যেভাবে নারীরা নির্যাতিত, ধর্ষিত হচ্ছে তাতে করে কোথাও নারীদের নিরাপত্তা নেই। আমরা চাই চলাফেরা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কর্মক্ষেত্রসহ সকল স্থানে নারীদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিশ্চিত করবেন। তৃতীয় দফা দাবিতে ৩ এপ্রিল সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রধর্মঘটের সমর্থন জানানো হয়। মানববন্ধন, রাস্তা অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিল শেষে সমাবেশে আরিফ এসব কথা বলেন।

 

8জহুরুল ইসলাম ছনির সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, জিহান আল হামাদী, তানজিল, তাজকিয়া প্রমুখ।
স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির মাহফুজা বৃষ্টি বলেন, তনুর মতো আর কোন নারীকে যেন এমন নৃশংসতার শিকার হতে না হয়।
ছনি বলেন, দেশের সর্বত্র নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। নারীকে তার প্রাপ্য সম্মান দিতে হবে। আমরা আশা করি প্রধানমন্ত্রী তনুর ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নিবেন।

 

জিহান বলেন, ছাত্র-ছাত্রীরা এখন রাজপথে নেমে এসেছে। আমরা তনুসহ বিভিন্ন সময়ে সংঘটিত হত্যাকা-ের আসামিদের গ্রেফতার করে সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি। মানববন্ধনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে অংশ ইভান, সাহাব, শাওন, ইভান, নাফিসা, সায়মা, আরাফাত, তোফাজ্জল, বাঁধন, বাশার, সোহেল, রোবায়েত, মিনহাজ, আশিক, মোনাসহ দুই শতাধিক শিক্ষার্থী।

 

দুপুর ১২টায় নো ভ্যাট চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। ঘণ্টাখানেক মানববন্ধন শেষে প্রায় আধা রাস্তা অবরোধ করে রাখা হয়। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ধানমন্ডি ১৫ পর্যন্ত গিয়ে পুনরায় ধানমন্ডি ২৭ এর নো ভ্যাট চত্বরে এসে শেষ হয়। কিছুক্ষণ বিরতির পর আবার বিক্ষোভ সমাবেশ শুরু হয়। এ সময় তনুর হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে বিচারের দাবিতে বিভিন্ন ধরনের প্লে কাড বহন করে শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক ও পথচারীসহ সমাজের বিভিন্নস্তরের নাগরিকরা এতে অংশ নেন।##

 

লেখাপড়া২৪.কম/এ্মএইচ

 

 

পছন্দের আরো পোস্ট