জবিতে এ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগিতা পুরস্কার বিতরণ

Jnu pic21.03.16জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) তে ‘৪র্থ বার্ষিক ক্রীড়া এ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগিতা-২০১৬’ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা কেন্দ্রের উদ্যোগে এ পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ভাষা শহীদ রফিক ভবন প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, “জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে চতুর্থ বারের মতো বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে যা প্রশংসার দাবিদার। নানা প্রতিবন্ধকতা ও সীমাবদ্ধতা থাকা স্বত্ত্বে ও ক্রীড়া কমিটির সার্বিক প্রচেষ্টায় এবং শিক্ষার্থীদের আন্তরিক অংশগ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্রীড়া ক্ষেত্রে উন্নতির স্বাক্ষর রাখছে।”

 

তিনি আরো বলেন, “ক্রীড়াই তার“ণ্যের প্রতীক। উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করার জন্য সুস্থ দেহ ও মন থাকা আবশ্যক। আর সুস্থ দেহ ও মন গঠনে খেলাধুলা গুর“ত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করে। এ ধরনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এ প্রতিষ্ঠান থেকে দেশের নামকরা অরো অনেক ক্রীড়াবিদ বেরিয়ে আসবে।”

 

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় চতুর্থ বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ২০১৬-এর ক্রীড়া পরিচালনা কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক মোঃ আশরাফ-উল-আলম এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্রীড়া কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোঃ আলী নূর। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি এফ এম শরিফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক এস এম সিরাজুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ও সার্বিক তত্ত¡াবধানে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিজিক্যাল ইন্সট্রাক্টর গৌতম কুমার দাস। এসময় বিভিন্ন অনুষদের ডিন, চেয়ারম্যান, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। উলে­খ্য, ২২ ফেব্রুয়ারি হতে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে দশটি ইভেন্টে (১০০ মিটার দৌড়, ২০০ মিটার দৌড়, ৪০০ মিটার দৌড়, ৮০০ মিটার দৌড়, রিলে রেস-৪ ´১০০, লং জাম্প, হাই-জাম্প, বর্শা নিক্ষেপ, চাকতি নিক্ষেপ, গোলক নিক্ষেপ) এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি ইভেন্টে ছেলে ও মেয়েদের আলাদা পর্বে তিনজনকে (প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয়) পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়।

 

বিভিন্ন খেলায় ১৪ পয়েন্ট পেয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্র মাসুদ বর্ষ সেরা এ্যাথলেটিক্স পুর“ষ খেলেয়াড় এবং ১৩ পয়েন্ট পেয়ে বাংলা বিভাগের ছাত্রী সীমা রানী আর্যু বর্ষ সেরা এ্যাথলেটিক্স মহিলা খেলোয়াড় নির্বাচত হয়।

 

লেখাপড়া২৪.কম/জবি/মাছুম/এমএএ

পছন্দের আরো পোস্ট