শেকৃবিতে সস্কৃতির মাধ্যমে বন্ধুত্ব

Agriculturalশেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শেকৃবি) ‘সস্কৃতির মাধ্যমে বন্ধুত্ব’ কে প্রতিপাদ্য বিষয় ধরে ‘ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার-কিষাণ থিয়েটার ১ম শেকৃবি আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় নাট্য উৎসব’ শেষ হয়েছে। বুধবার শুরু হয়ে ৪ দিন ব্যাপী চলা এ উৎসব শেষ হয় শনিবার রাতে। সংস্কৃতির মাধ্যমে সম্প্রীতির বাঁধনে আবদ্ধ করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র নাট্য সংগঠন কিষাণ থিয়েটারের আয়োজনে এ উৎসবে অংশ নেয় ১১ টি বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজ।

 

প্রথম দুইদিন বিভিন্ন ক্যাম্পাস থেকে আসা শিল্পীদের উপস্থাপনার পর ৩য় দিন উৎসবের সমাপনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান খান কামাল। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মোঃ শাদাত উল্লার সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানের শেষে ”রামেন্দু মজুমদার” এবং তার দল ”থিয়েটার” এর অংশগ্রহণে নাটক “কুহকজাল” মঞ্চস্থ হয়।

 

শেষ দিনে চলে কিষাণ থিয়েটারের পুনর্মিলনী।  এসময় থিয়েটারের পুরনো ও নতুন সদস্যদের মাঝে এক আবেগঘন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ‘৩০ বছরে আমাদের কিষাণ থিয়েটার’ নামে একটি স্মারকের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। সন্ধ্যায় কিষাণ থিয়েটারের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মুল আকর্ষণ ছিল নাটক ‘কালোত্তীর্ণ’।

 

উৎসব শেষে সংগঠনের সভাপতি কৃষিবিদ রমিজ উদ্দিন বলেন, সংস্কৃতির মাধ্যমে সকল ক্যাম্পাসের মধ্যে সম্প্রীতি বাড়ানো ও সকল ক্যাম্পাসে একটি নাট্যগোষ্ঠী তৈরি করা ছিল এ উৎসবের উদ্দেশ্য। এ উৎসব সফল করার পেছেনে যাদের সহযোগিতা রয়েছে তাদের সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান তিনি। কিষাণ থিয়েটারের মডারেটর প্রফেসর ডঃ মোঃ ছরোয়ার হোসেন বলেন, এমন একটি উৎসব সফল করতে পেরে আসলেই ভালো লাগছে। ভবিষ্যতে এ ধরণের উৎসব আয়োজনেও সর্বাত্মক সহযোগিতা থাকবে।

 

থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কৃষিবিদ কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমাদের থিয়েটার থেকে এই থিয়েটার অনেক বেশি এগিয়ে গিয়েছে। থিয়েটারের সাথে ছিলাম, আছি এবং আগামী দিনেও থাকবো।

 

উল্লেখ্য, উৎসব আয়োজনে সহযোগিতায় ছিল ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার গ্রুপ, ওয়ান ফার্মা লিমিটেড, লাইভ টেকনলজিস ও রেইনবো ইভেন্টস ম্যানেজমেন্ট। আর মিডিয়া পার্টনার ছিল ৭১ টিভি এবং ঢাকা এফএম।

 

লেখাপড়া২৪.কম/শেকৃবি/পিআর/এমএএ

পছন্দের আরো পোস্ট