ঢাবিতে জাতীয় মূকাভিনয় উৎসব

15-03-2016-shuvashish‘না বলা কথাগুলো না বলেই হোক বলা’ স্লোাগান নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাইম অ্যাকশন আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ‘জাতীয় মূকাভিনয় উৎসব-২০১৬’-এর সমাপনী অনুষ্ঠান মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সন্ধ্যায় ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে উৎসবের সমাপ্ত হয়। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মফিজুর রহমান, সেন্টার ফর ইন্টাররিলিজিয়াস এন্ড ইন্টারকালচারাল ডায়ালগ’র পরিচালক ড. ফাজরীন হুদা, ‘কারুকাজ’-এর সম্পাদক আমিরুল ইসলাম মুকুল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

গত ১৩ মার্চ ২০১৬ রবিবার প্রথমবারের মতো শুরু হওয়া এই উৎসবের উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাইম অ্যাকশনের সভাপতি শাহরিয়ার শাওনের সভাপতিত্বে উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. সহিদ আকতার হুসাইন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম, বাংলাদেশ মূকাভিনয় ফেডারেশনের সভাপতি জাহিদ রিপন।

 

উৎসবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাইম অ্যাকশন মঞ্চায়ন করে ‘লাইট ভার্সেস ডার্কনেস’ শীর্ষক মাইমোড্রামা। এতে নিজ নিজ পরিবেশনা নিয়ে অংশ নেয় ঢাকার স্বপ্নদল, মাইম আর্ট, বেঙ্গল থিয়েটার, জেন্টলম্যান প্যান্টোমাইম, পরিবর্তন মাইম একাডেমি, বাংলাদেশ হুদামাইম ক্লাব, চট্টগ্রামের প্যান্টোমাইম মুভমেন্ট, অনাদিকল্প, গাজীপুরের মুক্তমঞ্চ নির্বাক দল, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রঙ্গন মাইম একাডেমি, নারায়ণগঞ্জের শ্রুতি কালচারাল সেন্টার, বাংলাদেশ মাইম থিয়েটারসহ দেশের ১৫টি মূকাভিনয় দল।

 

ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে মাইম প্রদর্শনীর পাশাপাশি শহীদ মিনার, কার্জন হল, কলাভবন, শাহবাগসহ পুরো ক্যাম্পাস জুড়েই ছিল স্ট্রিট শো’সহ নানা কর্মসূচি। একই সাথে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ছিল মূকাভিনয়ের উপর কর্মশালা-সেমিনার এবং পোস্টার প্রদর্শনী।#

 
লেখাপড়া২৪.কম/আরএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট