ইন্টারনেট জেনারেশন চূড়ান্ত পর্বের পুরস্কার বিতরন

sentbg_243299626রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত গ্রামীণফোন আয়োজিত ইন্টারনেটভিত্তিক প্রতিযোগিতা ‘আই-জেন (ইন্টারনেট জেনারেশন) ২০১৫’র চূড়ান্ত পর্বে বিজয়ী হয়েছে ঢাকার সেন্ট জোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুল। শুক্রবার (১১ মার্চ) গ্রামীণ‌ফোন এক সংবাদ বিজ্ঞ‌প্তিতে জা‌নি‌য়ে‌ছে, বিজয়ী স্কুল পুরস্কার হিসেবে জিতে নিয়েছে ২৫ লাখ টাকা মূল্যের শিক্ষাবৃত্তি। এছাড়া বিজয়ী স্কুলে সব শিক্ষার্থীর জন্য স্কুল প্রাঙ্গণে ইন্টারনেট ল্যাব স্থাপন করা হবে।

 

শিক্ষাবৃত্তির ২৫ লাখ টাকার মধ্যে গ্রামীণফোন দিয়েছে ১০ লাখ, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ১০ লাখ ও উরি ব্যাংক দিয়েছে ৫ লাখ টাকা আর ইন্টারনেট ল্যাবের ল্যাপটপ দিয়েছে মাইক্রোসফট বাংলাদেশ।প্রথম ও দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছে যথাক্রমে হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল।প্রথম রানার আপ দল পুরস্কার হিসেবে পেয়েছে এখানেই ডট কমের সৌজন্যে ১০ লাখ টাকার শিক্ষাবৃত্তি ও দ্বিতীয় রানার আপ দল পুরস্কার হিসেবে পেয়েছে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের সৌজন্যে ৫ লাখ টাকা মূল্যের শিক্ষাবৃত্তি।

 

বৃহস্প‌তিবার (১০ মার্চ) অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ, চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, গ্রামীণফোনের চিফ করপোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন ও প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ইয়াসির আজমান। এছাড়া অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র ব্যবস্থাপনা সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

 

চলো বহুদূর ব্র্যান্ড প্রতিজ্ঞা নিয়ে ‘সবার জন্য ইন্টারনেট’ প্রয়াসের অধীনে এবং নিজেদের প্রধান ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করতে সম্পূর্ণভাবে ডিজিটাল প্রজন্ম গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখার ব্যাপারে গ্রামীণফোন দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।

 

২০১১ সাল থেকে আই-জেনের আয়োজন চলছে। বিগত বছরগুলোতে কর্মসূচির মাধ্যমে প্রতিযোগিতাটি দেশের সর্ববৃহৎ ইন্টারনেটভিত্তিক কর্মসূচিতে পরিণত হয়েছে। গতবছর এতে ২০০০ স্কুল ও নয় লাখ দর্শক সরাসরি অংশগ্রহণ করে।

 

 

পছন্দের আরো পোস্ট