নোবিপ্রবিতে ফিশারিজ ডিপার্টমেন্টের মানববন্ধন

IMG_20160309_174410৩৭তম বিসিএস পরীক্ষায় উপ-সহকারী পরিচালক (মৎস্য)পদে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীদের অন্তর্ভূক্তির প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

 

মানববন্ধনে প্রায় ৩০০ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘৩৭তম বিসিএসে উপ-সহকারী পরিচালক (মৎস্য) পদে আগে শুধু ফিশারিজ বিভাগ থেকেই ক্যাডার নিয়োগ হতো। কিন্তু ৩৭তম বিসিএসে সম্পূর্ণ অযৌক্তিকভাবে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীদের অন্তর্ভুক্ত করছে পিএসসি। আমরা এ সিদ্ধান্তের নিন্দা জানাই।’

 

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, ‘ফিশারিজ বিভাগ থেকে ৬ থেকে ৭ বছর পড়ে এ বিষয়ে যে জ্ঞান অর্জন করা হয় অন্য বিভাগে পড়ে তা সম্ভব নয়। তাই এ ক্যাডারে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীদের নেওয়া হলে অদক্ষতার কারণে দেশের মৎস্য খাত ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। পাশাপাশি যোগ্যরা তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে।’ এ বিষয়ে তৃতীয় বর্ষের ছাত্র সোলাইমান বলেন, ‘জাম গাছ থেকে যেমন কাঁঠাল আশা করা যায় না তেমনি প্রাণিবিদ্যা পড়ে ফিশারিজ সম্পর্কে জানা সম্ভব নয়।’

 

আরেকজন শিক্ষার্থী সোহানা জানান, ‘এ সিদ্ধান্তে দেশের মৎস্য খাত ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। দেশের প্রায় ১২ টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিশারিজ ডিপার্টমেন্টের বহু গ্রাজুয়েট প্রতি বছর দেশের মৎস্য খাতে ব্যাপক অবদান রাখছে কিন্তু পিএসসির এই সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীরা এ বিষয়ে অনুপ্রেরণা হারাবে।’

 

৪র্থ বর্ষের ছাত্র সাদ্দাম জানায়, ‘ছাগল দিয়ে যেমন হাল চাষ হয় না তেমনি প্রাণিবিদ্যা পড়ে মৎস্য সেক্টরে অবদান রাখা সম্ভব নয়। শিক্ষার্থীদের এ ন্যায্য অধিকার ফিরিয়ে না দিলে পিএসসি অথবা মৎস্য ভবন ঘেরাও করার মত তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।##

 

লেখাপড়া২৪.কম/এমএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট