শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

DSC01056প্রতিবছরের ন্যায় এবারও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুইদিনব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ’১৬ এর কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রবিবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বেলুন উড়িয়ে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন শাবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আমিনুল হক ভুইয়া।

 

রবিবার সকাল ১০টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরু হয়। পরে বিভিন্ন ইভেন্টে অংশগ্রহণকারী খেলোয়াড়দের নিয়ে মার্চপাস্ট, মশাল প্রজ্জ্বলন ও শপথ পাঠের মাধ্যমে মূল অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু করা হয়। এসময় বেলুন উঁড়িয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ’১৬ এর আনুষ্ঠিকভাবে উদ্বোধন ঘোষণা করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আমিনুল হক ভুইয়া।এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার, শারীরিক শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক চৌধুরী সৌউদ বিন আম্বিয়া প্রমুখ।

 

 

DSC01043এসময় উপাচার্য বলেন, শারীরিক সুস্থতা ও মানসিক উৎকর্ষ সাধনে খেলাধুলার গুরুত্ব অপরিসীম। সুষ্ঠুভাবে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা স¤পন্নের ক্ষেত্রে প্রতিযোগীদের মধ্যে খেলোয়াড়সুলভ মনোভাব বজায় রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পরে তিনি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী ছাত্র ছাত্রীদের ও প্রতিযোগিতার আয়োজক কমিটিতে থাকা সকলকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে প্রতিযোগিতার সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।

 

শারীরিক শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক চৌধুরী সউদ বিন আম্বিয়া বলেন, রবিবার সকাল ১১টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বিভিন্ন ইভেন্টের হিট ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত সকল ইভেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন হবে। তবে সোমবার আড়াইটা থেকে শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারিদের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। সবচেয়ে আকর্ষণীয় ইভেন্ট হবে বিকাল ৪টায় উপাচার্য, কোষাধ্যক্ষ ও অধ্যাপকদের ১০০ মিটার দৌড় প্রতিযোগিতা।

 

DSC01025প্রতিযোগিতা পরবর্তী সময়ে বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে পুরষ্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শাবিপ্রবির উপাচার্য ড. মো. আমিনুল হক ভুইয়া।

 

উল্লেখ্য প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিবছর বিশ্ববিদ্যালয় শারীরিক শিক্ষা অধিদফতর দুইদিনব্যাপী এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার কার্যক্রম শুরু হয়। বার্ষিক ক্রীড়া উৎসবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৬টি বিভাগের শিক্ষার্থীরাসহ শিক্ষক কর্মকর্তারাও অংশগ্রহণ করছেন।##

 

লেখাপড়া২৪.কম/এমএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট