ডিআইইউতে “ইতিহাস কথা বলে” আলোচনা সভা

01ইতিহাস থেকে মুক্তিযুদ্ধের গল্প নবীন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কর্তৃক আয়োজিত “ইতিহাস কথা বলে- সংগ্রাম থেকে স্বাধীনতায় বঙ্গবন্ধু” শীর্ষক আলোচনা ২৪ ফেব্রুয়ারী আশুলিয়ায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরেন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা লেঃ কর্ণেল (অবঃ) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির, বীর প্রতীক। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউছুফ এম. ইসলাম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য ও এমিরিটাস প্রফেসর ড. আমিনুল ইসলাম।

 

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যায়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী এ. কে. এম. ফজলুল হক, পরিচালক (স্থায়ী ক্যাম্পাস) ড. মোস্তফা কামাল, ডেপুটি রেজিস্ট্রার ড. এ.বি.এম কামাল পাশা, প্রকল্প পরিচালক (উন্নয়ন) মেজর (অবঃ) মো. আরমান আলী ভুইয়া এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর এর সমš^য়কারী ক্যাপ্টেন (অবঃ) মোঃ শওকাতুল ইসলাম।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা লেঃ কর্ণেল (অবঃ) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির বলেন, বীর দর্পে মাথা উচুঁ করে বিশ্বমানচিত্রে ঠাই করে নেয়ার এ বিরল সম্মান বাংলাদেশের মাতৃকাকে দিয়েছে তার একঝাক অকুতোভয়, প্রানচঞ্চল মুক্তিযোদ্ধা। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুদীর্ঘ নয়মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসাবে আত্মপ্রকাশ করে আমাদের এই বাংলাদেশ। পরবর্তী প্রজন্মের জন্য একটি স্বাধীন, সার্বভৌম ভূখন্ডে নিঃশ্বাস নিতে পারার পরিবেশ তৈরীতে অবদান রাখায় তিনি অন্যান্য বীর মুক্তিযুদ্ধাদের বিনম্র শ্রদ্ধা ও বিশেষ কৃতজ্ঞতা জনান সেই সাথে একজন বীর মুক্তিযুদ্ধা হিসেবে নিজেকে অনেক গর্বিত মনে করেন।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউছুফ এম. ইসলাম বলেন, ১৯৭১ সালে ঝাঁকে ঝাঁকে বীর সেনানী মুক্তির নেশায় মেতে উঠে। তাদের আত্মত্যাগের ফসল আজকের এই সোনার বাংলা। অসংখ্য বীরের মাঝ থেকে আমরা পেয়েছি বীরশ্রেষ্ঠ, বীরউত্তম, বীরবিক্রম ও বীরপ্রতীক। তাদের মধ্যে জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান মহান মুক্তিযুদ্ধের বীরপ্রতীক বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা লেঃ কর্ণেল (অবঃ) কাজী সাজ্জাদ আলী জহিরকে ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির মাঝে পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনেক গর্বিত।

 

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মিস লিজা শারমিন এবং সহকারী পরিচালক (স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স) জনাব এজাজ-উর-রহমান (সজল)।

 

লেখাপড়া২৪.কম/ডিআইইউ/পিআর/এমএএ

পছন্দের আরো পোস্ট