উত্তরা ইউনিভার্সিটিতে নবীণ শিক্ষার্থীদের অরিয়েন্টেশন

_DSC0522উত্তরা ইউনিভার্সিটি’র সিভিল, এনভায়রনমেন্ট এ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের স্প্রিং ২০১৬ সেমিস্টারের নবীণ শিক্ষার্থীদের অরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপন্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি মাহবুবুল হক শাকিল। স্কুল অব সিভিল, এনভায়রনমেন্ট এ- ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ডীন প্রফেসর ডক্টও মোহাম্মদ আবদুর রশীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ডক্টর এম আজিজুর রহমান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডক্টর ইয়াসমীন আরা লেখা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রফেসর ফয়েজ এম সিরাজুল হক।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ওরিয়েন্টেশনে নবীণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে মাহবুবুল হক শাকিল বলেন, স্কুল ও কলেজের গন্ডি পেরিয়ে একটি স্বাধীন আঙিনায় প্রবেশ করায় শিক্ষঅর্থীদের দায়িত্বের পরিমাণ বেড়েছে।তিনি বলেন, শিক্ষার মধ্য দিয়ে মানবিক হয়ে উঠতে হবে। কারো মধ্যে মানবিকতার বিকাশ না ঘটলে তার শিক্ষা অসম্পূর্ণ থেকে যায়। মনে রাখতে হবে, অভিভাবক আর দেশের মানুষের কষ্টার্জিত অর্থে তারা উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করছে। ফলে দেশ ও জনগণের প্রতি দায়বদ্ধতা রয়েছে।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ডক্টর এম আজিজুর রহমান বলেন, সভ্যতা বিনির্মাণের কারিগর প্রকৌশলীরা। তাই দেশকে এগিয়ে নিতে এবং নিজেদের ভবিষ্যত গড়তে এখন থেকেই তাদের প্রস্তুতি নিতে হবে।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য অর্ধাপক ডক্টর ইয়াসমীন আরা লেখা নবীণ শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে মেধাবী ও দক্ষ শিক্ষক রয়েছেন, তাদের সান্নিধ্যে থেকে নিজেকে একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। তিনি প্রযুক্তির ব্যবহারে শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করার পাশাপাশি এর নেতিবাচক দিক সম্পর্কেও সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন।

 

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি মাহবুবুল হক শাকিলের লেখা কবিতা আবৃত্তি ছাড়াও দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করেন উত্তরা ইউনিভার্সিটি কালচারাল ক্লাবের সদস্যরা।

_DSC0562

 

পছন্দের আরো পোস্ট