উচ্চশিক্ষা গুণগতমান অর্জনের পথে খুবি রোল মডেল

Khulna University photo২ ফেব্রুয়ারি নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনের লেকচার থিয়েটারে সেলফ এসেসমেন্ট প্রাক্টিস এন্ড সার্ভে ইন ইউআরপি ডিসিপ্লিন শীর্ষক দিনব্যাপী এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে এ কর্মশালার উদ্বোধন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি বলেন বিশ্ব র‌্যাংকিংএ উপরি স্তরে নিতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা-গবেষণাসহ সবক্ষেত্রে গুণগতমান নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

 

উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে আরও বলেন, গতানুগতিক শিক্ষা গ্রহণের দিন শেষ হয়ে গেছে। তথ্য-প্রযুক্তি এখন শিক্ষা-গবেষণার আন্তর্জাতিক দ্বার খুলে দিয়েছে। আমাদের সিলেবাস, কারিকুলা বিশ্বমানের কিনা, শিক্ষা ব্যবস্থা যুগোপযোগী কিনা, আমাদের অবস্থান কোন স্তরে সবই এখন জানা সহজতর হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রে গুণগতমান অর্জন প্রচেষ্টার পথে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় এখন রোল মডেল।

 

তিনি সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নেয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন উচ্চশিক্ষার গুণগতমান অর্জনে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে হেকেপের সাব প্রজেক্টের কাজ নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনে প্রথম শুরু হয়। আর এর মাধ্যমে আমাদের যাত্রা শুরু। এক্ষেত্রে এ ডিসিপ্লিন অগ্রণী ভ‚মিকা পালন করছে।

 

উপাচার্য আরও বলেন কোয়ালিটি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তোলার যে সমস্ত পদক্ষেপ নেয়ার দরকার তা ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় এক্ষেত্রে অনেক দূর এগিয়ে গেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিসিপ্লিনসমূহের মধ্যে ৭টিতে আত্মযাচাই (সেলফ এসেসমেন্ট) প্রক্রিয়া শেষের পথে, আরও ৭টি ডিসিপ্লিনে তা শুরু করার জন্য বাছাই করা হয়েছে এবং পর্যায়ক্রমে অবশিষ্ট ডিসিপ্লিনকেও এ প্রক্রিয়ায় যুক্ত করা হবে।

 

তবে তিনি বলেন, কোয়ালিটি বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তুলতে হলে কোয়ালিটি সম্পন্ন শিক্ষক প্রয়োজন আর তা হলে কোয়ালিটি সম্পন্ন গ্রাজুয়েট তথা দক্ষ মানব সম্পদ তৈরি করা যাবে। বিশ্ব চাহিদা উপযোগী দক্ষ মানব সম্পদ তৈরি করতে না পারলে সে বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিকমানের স্বকৃতি পাবে না।

 

ইউআরপি ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. মোঃ মোস্তফা সারোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বিজ্ঞান, প্রকৌশল ও প্রযুক্তিবিদ্যা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ ইসমত কাদির এবং ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি) এর পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ রেজাউল করিম বক্তব্য রাখেন। কর্মশালায় আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জিয়াউল হায়দারসহ ডিসিপ্লিনের সকল শিক্ষক, সিনিয়র শিক্ষার্থী এবং কুয়েট, কেসিসি, কেডিএ’র সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তাবৃন্দ অংশ নেন। কর্মশালায় নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনের সেলফ এসেসমেন্ট রিপোর্ট তুলে ধরা হয়।

 

লেখাপড়া২৪.কম/খুবি/পিআর/এমএএ

পছন্দের আরো পোস্ট