জাবিতে জেইউডিও’র নতুন কমিটি গঠন

judo photoজাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় বিতর্ক সংগঠন জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটি ডিবেট অর্গানাইজেশন (জেইউডিও) এর ২০১৬ সালের ২১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কার্যনির্বাহী পরিষদ গঠিত হয়েছে।

 

প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থী শেখ রাহাত রহমান সভাপতি ও আইন ও বিচার বিভাগের শাহীন রেজা কে সাধারন স¤পাদক হিসেবে মনোনীত করা হন।

 

বিশ্ববিদ্যারয়ের সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চে শনিবার সন্ধ্যায় সংগঠনটির ১১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে নতুন কমিটিকে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়।

 

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সংগঠনের মডারেটর ও ইতিহাস বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. এ টি এম আতিকুর রহমান।

 

বিতার্কিকদের উৎসাহিত করে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম বলেন- ‘সবাই হয়ত ভাল ছাত্র হতে পারবে না, তবে ভাল মানুষ হতে পারে সবাই। বিতর্ক চর্চা একজন মানুষকে যুক্তিবাদী হওয়ার মাধ্যমে ভাল মানুষ হতে সাহায্য করে। যে কাজটি জেইউডিও ১১ বছর করে করে যাচ্ছে।’

 

এর আগে মুক্তমঞ্চে আয়োজন করা হয় ৮ম আন্তঃ হল বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩টি আবাসিক হলের মধ্যে শহীদ সালাম-বরকত হল ও আল বেরুনী হলের মধ্যে এ বিতর্কটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে চ্যাম্পিয়ন হন আল-বেরুনী হল। চূড়ান্ত পর্বের বিতর্কে শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হন আল-বেরুনী হলের ছাত্র মহির মারুফ।

 

একই সাথে এই দিনে জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটি ডিবেট অর্গানাইজেশন (জেইউডিও)-র ১১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীও উদযাপন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কেক কাটার মধ্য দিয়ে সংগঠনটির ১১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়। উদযাপনের অংশ হিসেবে হূমায়ূন আহমেদ স্মরণে স্রষ্টার-সৃষ্টি বিতর্ক প্রদর্শিত হয়।

 

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. তপন কুমার সাহা, জেইউডিও’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আব্দুল্লাহ আহমেদ চৌধুরী মামুনসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ, সাবেক সভাপতিবৃন্দ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র সাব্বির আহমেদ। অনুষ্ঠানের আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের ছাত্র ইব্রাহিম হোসেন।
নতুন কমিটির সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন-সাদিকা বিনতে মাজহার, সহ-সভাপতি (বিতর্ক), ইব্রাহিম হোসেন সহ-সভাপতি (প্রশাসন), দিলশাদ হোসেন দীনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (বাংলা বিতর্ক), মুশফিক উস সালেহীন যুগ্ম সাধারন স¤পাদক (ইংরেজি বিতর্ক), মেহেদী হাসান শুভ, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক (যোগাযোগ), আবির মাহমুদ (সাংগঠনিক সম্পাদক), আকিফ মাসুমী (সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক), ফরহাদ হোসেন (কোষাধ্যক্ষ)। সোহানুর রহমান (অনুষ্ঠান বিষয়ক সম্পাদক), জান্নাতুল ফেরদৌস তিথি (দপ্তর সম্পাদক), মোজাম্মেল হক তন্ময় (প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক), শায়লা রহমান ইমা (প্রেস ও মিডিয়া সম্পাদক), কারিমুজ্জামান সানী, (তথ্য-প্রযুক্তি সম্পাদক), রুকাইয়া আলম মৌমিতা (শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক) এবং কার্যকরী সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন আবু সায়েম রিমন, জামশেদ গাজী, সুরঞ্জন সরকার, মেহবুব হাসান শাওন ও বৈশাখী রুবাইয়াত।

 

উল্লেখ্য, প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য ও সংগঠনের নিবেদিত প্রাণ হিসেবে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয় সংগঠনটির সাবেক সভাপতি মুকসিমুল আহমান অপুকে।#

 

লেখাপড়া২৪.কম/জাবি/পিআর/আরএইচ-৫১৪৯

পছন্দের আরো পোস্ট