কুবিতে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও শহীদ মিনার উদ্বোধন

IMG_7301যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) পালিত হয়েছে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন করার মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। সকাল ১০ টায় কালো ব্যাচ ধারণ ও র‌্যালি শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনির্মিত শহীদ মিনার উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আলী আশরাফ।

 

এরপর শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আলী আশরাফ। পর্যায়ক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বিভিন্ন বিভাগ, আবাসিক হল, শাখা ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠন শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন ও তাঁদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

 

পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে সংক্ষিপ্ত ভাষণে উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আলী আশরাফ বলেন, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর পরাজয় যখন অবশ্যম্ভাবী, বিজয়ে চূড়ান্ত ক্ষণটি যখন আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে ঠিক তার দুদিন আগে সংঘটিত হয় ইতিহাসের এক নজিরবিহীন হত্যাকান্ড। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন হত্যাকান্ড এটিই প্রথম।

 

স্বাধীন বাংলাদেশকে মেধা ও মননে পঙ্গু করে দেওয়ার উদ্দেশ্যে পাকিস্তানী বাহিনীর পরিকল্পিত বুদ্ধিজীবী নিধনযজ্ঞে সহযোগী হয়েছিল এ দেশেরই কিছু মানুষ-রাজাকার, আলবদর ও আলশামস বাহিনীর সদস্যরা। তাদের প্রত্যক্ষ সহযোগিতা ছাড়া বুদ্ধিজীবীদের বেছে বেছে হত্যা করা পাকিস্তানী বাহিনীর পক্ষে সম্ভব ছিল না।

 

পাকিস্তানী বাহিনী পরাজয়ের প্রতিশোধ নেয়ার জন্য এদেশের বিভিন্ন পেশার জ্ঞানী-গুণীজনদের হত্যা করার পরিকল্পনা করে। স্বাধীনতা পেলেও বাঙালি জাতি যাতে মেধাশূন্য হয় এবং বিশ্বের দরবারে যেন মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে সে উদ্দেশ্যেই তারা এ হত্যাকান্ড সংঘটিত করে।

 

তিনি আরো বলেন, পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী এবং তাদের এ দেশীয় দোসর যারা এ দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান শিক্ষাবিদ, লেখক, সাংবাদিক, চিকিৎসক, চলচ্চিত্রকারসহ বিভিন্ন পেশার নারী-পুরুষকে হাত-পা, চোখ-মুখ বেঁধে বাসা থেকে বন্দী করে নিয়ে আসে এবং অত্যন্ত পৈশাচিকভাবে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছিল তাদের বিচার কার্যক্রম চলছে। অনেকের রায় কার্যকর হয়েছে। যারা দেশের বাইরে রয়েছেন তাদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের মাধ্যমে সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদানের দাবীও জানান তিনি।

 

লেখাপড়া২৪.কম/কুবি/পিআর/এমএএ-০৩৮৭

পছন্দের আরো পোস্ট