৪৭ বছরের পুরানো ভবনে ক্লাশ চলছে ঝুঁকি নিয়ে

photo(2)-26.11.15বাগেরহাটের মোরেলৃগঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞহাটী ইউনিয়নের ৪৭ বছরের পুরানো ৪১নং কেকে পোলেরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে ঝুঁকি নিয়ে ক্লাশ করছে। ভবনটি যে কোন সময়ে ভেঙ্গে পড়ে বড় কোন দূর্ঘটনার সম্ভাবনা রয়েছে। আতঙ্কের মধ্যে ক্লাশ করছে শিক্ষার্থী সহ অভিভাবকরা।

 

১৯৫৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে উপজেলার কেকে পোলেরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি। ১৯৬৮ সালে মাত্র ১৮ হাজার টাকা ব্যায়ে নির্মিত হয় এ বিদ্যালয়টি। ৪৭ বছর পূর্বে নির্মিত এ বিদ্যালয়টি এখন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। যে কোন মুহুর্তে ভেঙ্গে পড়ে ঘটতে পারে বড় ধরনের কোন দূর্ঘটনা। প্রতিনিয়ত আতঙ্কের মধ্যে থাকতে হয় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের। শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে পাঠিয়ে নিশ্চিতে থাকতে পরছেননা অভিভাবকরা। দরজা নেই, জানালা নেই। নেই প্রয়োজনীয় বেঞ্চ ,চেয়ার, টেবিল। প্রতিটি পিলারের পলেস্তরা খসে খসে পড়ে রড দৃশ্যমান। ক্লাশ রুমের পলেস্তরাও প্রতিনিয়ত ঝরে পড়ছে। অবকাঠামোগত ঝুঁকি ও আসবাবপত্রের চরম সংকটের কারনে ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষাকার্যক্রম।

 

প্রতিবছরের পিএসসি রেজাল্টে একাধিক ‘এ প্লাস’ সহ শতভাগ পাশের সুনাম রয়েছে এ বিদ্যালয়ের। লেখাপড়ার পাশাপাশি সহপাঠ কার্যক্রমেও এগিয়ে রয়েছে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা। তারপরও দূর্ঘটনার ভয়ে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের বিদ্যালয় পাঠাতে চায়না। ফলে প্রতিনিয়ত ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে।

 

প্রধান শিক্ষিক হাওলাদার এনছান উদ্দিন জানান, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে। বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য বিদ্যালয় নির্মানের জন্য ডিও লেটার প্রদান করেছেন। অথচ এ বিদ্যালয়ের দিকে কর্তৃপক্ষের কোন নজর নেই।অনতিবিলম্বে বিদ্যালয়টি পুনঃনির্মান জরুরী বলে এলাকাবাসি ও অভিভাবকমহল দাবি করেন।

 

লেখাপড়া২৪.কম/বাগেরহাট/লিপন/স্বশা-৪৪৭৬

পছন্দের আরো পোস্ট