সাদার্নে পুরকৌশল বিভাগে সেমিনার

????????????????????????????????????

সার্দান ইউনির্ভাসিটি বাংলাদেশের পুরকৌশল বিভাগের উদ্যোগে “বিল্ডিং কাঠামো অধিকতর শক্তিশালী করার জন্য ফেরোসিমেন্ট জেকেটিং পদ্ধতি ব্যবহারের উপযোগিতা” শীর্ষক সেমিনার সম্প্রতি সেমিনার রুমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাদার্ন ইউনিভার্সিটির পুরকৌশল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. বিজয় শংকর বড়–য়া সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পুরকৌশল বিভাগের শিক্ষক ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদা মোস্তফা। সেমিনারে শিক্ষকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীসহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রকৌশলীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদা মোস্তফা বলেন, প্রাকৃতির দুর্যোগ এবং ভুমিকম্পের কারণে যে কোন তুলনামূলক দুর্বল কাঠামো ভেঙ্গে পড়তে পারে, সে জন্য কাঠামো শক্তিশালী করার মাধ্যমে স্থায়িত্ব বাড়ানো দরকার। এছাড়াও অনেক সময় আবাসিক ভবন বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে বিদ্যমান ভবনের বিভিন্ন কাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে যদি না ভবনগুলোকে শক্তিশালী করা হয়। এই পুনঃশক্তিশালী করার কাজটি অনেকগুলো পদ্ধতির মাধ্যমে করা যায়। এদের মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হলো কার্বন ফাইবার পলিমার, প্লেট জেকেটিং এবং ফেরোসিমেন্ট জেকেটিং পদ্ধতি। উপরোক্ত পদ্ধতিগুলোর মধ্যে ফেরোসিমেন্ট জেকেটিং তুলনামূলকভাবে সস্তা এবং এর উপকরণগুলো বাংলাদেশের সর্বত্র পাওয়া যায়। ফলে এর ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা বিদ্যমান দুর্বল ভবনগুলো শক্তিশালী করে ব্যবহার উপযোগী করতে পারি।

 

সভাপতির বক্তব্যে ড. বিজয় শংকর বড়–য়া বলেন, বাংলাদেশ ভুমিকম্প প্রবণ দেশ এবং বর্তমান প্রয়োজনে অনেক সময় বিল্ডিং ওভার লোডেড্ করা হয়। এ সব কারণে ভবন অধিকতর শক্তিশালী করা প্রয়োজন। এতে খরচের বিষয়টা আসলেও ভবনের স্থায়িত্ব ধরে রাখার জন্যে বিষয়টি প্রয়োগ করা দরকার।

 

তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশে পুরোনো ভবন, সেতু, কালভার্ট ইত্যাদি স্থাপনাগুলো ভেঙ্গে না ফেলে এই পদ্ধতির মাধ্যেমে এগুলো পুনরায় শক্তিশালী করে ব্যবহার উপযোগী করা যায় এবং খরচও অনেক কম।#

 

 

লেখাপড়া২৪.কম/সাদার্ন/পিআর/আরএইচ-৪৬৯৮

পছন্দের আরো পোস্ট