ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনা

imagesজার্মানির প্রথম দশটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অন্যতম একটি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনা।  আর বিজ্ঞান এবং অর্থনীতি অনুষদের কারণে প্রথম পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ভিয়াদ্রিনা তার জায়গা করে নিয়েছে৷জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট আন ডেয়ার ওডার শহরটির পূর্বে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান।  বার্লিন থেকে কিছুটা দূরে৷ এই শহরেই ১৯৯১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনা৷ এই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে মাত্র তিনটি অনুষদ৷ ব্যবসা প্রশাসন অনুষদ, আইন অনুষদ এবং সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ৷ এই অনুষদগুলো প্রায় ২১টি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে পড়াশোনার সুযোগ দিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়টি৷ বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে কাজ করছে ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনা৷

আইন অনুষদ কাজ করছে কোস্টা রিকা, ইকোয়েডর, কাজাখস্তান, কলম্বিয়া, মেক্সিকো এবং রাশিয়ার সঙ্গে৷ অর্থনীতি অনুষদ কাজ করছে আর্জেন্টিনা, ইকোয়েডর, কলম্বিয়া, মেক্সিকো, রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, উরুগুয়ে এবং অ্যামেরিকার সঙ্গে৷ আর সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ কাজ করছে আর্জেন্টিনা, চিলি, কলম্বিয়া, মেক্সিকো, রাশিয়া এবং অ্যামেরিকার সঙ্গে৷ প্রতি বছর এসব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনায় আসছে এবং এখানে থেকেও ছাত্র-ছাত্রীরা বিভিন্ন দেশে যাচ্ছে৷

বর্ত মানে ১,৪২১ জন বিদেশি ছাত্র-ছাত্রী ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনায় পড়াশোনা করছে৷ অর্থাৎ ২৩ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রীই বিদেশি৷ জার্মানির অন্য কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে এত বিদেশি ছাত্র-ছাত্রী নেই৷ সব মিলে এখানে পড়াশোনা করছে ছয় হাজারেরও বেশি ছাত্র-ছাত্রী৷

04_10_2010Studis_Einfuehrung_IMG_7120পড়াশোনার মেলার আয়োজন করা হয় নিয়মিত

জার্মানির খুব বেশি বিশ্ববিদ্যালয় ভারত-বাংলাদেশের ছাত্র-ছাত্রীরা চেনে না৷ মূলত মেলার মাধ্যমে এসব বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির প্ররচারাভিযান চালায়। এবং ভর্তির জন্য বিদেশি ছাত্র-ছাত্রীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়৷ এসব মেলায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় নিজেদের সম্পর্কে একটা পরিচিতি তুলে ধরে৷ এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি ভাষায় তৈরি ওয়েবসাইট এর মাধ্যম ও দেশের মাটিতে স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে কাজ এ বিশ্ববিদ্যালয় ওতপ্রোতভাবে কাজ করে থাকে৷ দু’জন সহকর্মী বিভিন্ন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের গিয়ে কী কী বিষয় পড়ানো হচ্ছে তা খতিয়ে দেখেন৷ এছাড়া কয়েক সপ্তাহের জন্য বিদেশি ছাত্র-ছাত্রীদের এখানে নিয়ে আসা হয় যাতে করে তারা ক্যাম্পাসের পরিবেশ খুব কাছ থেকে দেখে উৎসাহিত হয় যার খরচ বিশ্ববিদ্যালয়  বহন করে৷’

ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনার বৈশিষ্ট্য

ইউরোপীয় ইউনিভার্সিটি ভিয়াদ্রিনার বৈশিষ্ট্য বা বিশেষত্ব কী? কেন একজন বিদেশি ছাত্র বা ছাত্রী এখানে পড়ার আগ্রহ দেখাবে? এই প্রশ্নের উত্তর হচ্ছে, ভিয়াদ্রিনা বিশ্ববিদ্যালয় অত্যন্ত আন্তর্জাতিক মানের – এর অন্যতম কারণ হল বিপুল পরিমাণে বিদেশি ছাত্র-ছাত্রীর সমাগম৷ যেহেতু পোল্যান্ডের সীমানায় অবস্থিত তাইেএর অনেক কর্মসূচি পোল্যান্ড এবং পূর্ব ইউরোপের অনেক দেশকে ঘিরে৷ ভিয়াদ্রিনার পড়াশোনার খরচ  জার্মানির অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের তূলনায় অনেক কম৷ এর কারণ ফ্রাঙ্কফুর্ট আন ডেয়ার ওডার শহরে থাকতে খুব বেশি খরচের প্রয়োজন নেই৷এই বিশ্ববিদ্যালয় গত বছর বিশ্ববিদ্যালয় ব়্যাংকিং-এ জার্মানির প্রথম পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে উঠে এসেছে৷ বিশেষ করে অর্থনীতি এবং বিজ্ঞান অনুষদ বেশ সুনাম কুড়িয়েছে৷

DSC_3298কীভাবে নিজেকে তৈরি করবেন?

ভারত-বাংলাদেশ থেকে যেসব ছাত্র-ছাত্রী জার্মানিতে পড়তে আসতে চায়, তারা কীভাবে নিজেদের তৈরি করবে? বিশ্ববিদ্যালয় কী প্রত্যাশা করে এসব অতিথিদের কাছ থেকে? এক্ষেত্রে সবার আগে আসবে জার্মান ভাষার কথা৷ কেউ যদি জার্মান ভাষায় পড়তে চায় তাহলে তাকে খুব ভালভাবে ভাষাটি জানতে হবে৷ এছাড়া ইংরেজিও জানা প্রয়োজন যদি ছাত্র বা ছাত্রীটি ইংরেজিতে পড়তে চায়৷অবশ্য ভারত-বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এটা কোন সমস্যা নয় ৷ আর অবশ্যই ছাত্র বা ছাত্রীকে ভাষা সংক্রান্ত প্রতিটি শর্ত পূরণ করতে হবে৷

পছন্দের আরো পোস্ট