মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতে পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ স্থায়ী কমিটির

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে।
আজ মঙ্গলবার সংসদ ভবনে কমিটির সভাপতি মোঃ মোতাহার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ সুপারিশ করা হয়।
কমিটির সদস্য শামসুল হক চৌধুরী, মোঃ নজরুল ইসলাম বাবু, মোঃ আবুল কালাম, মোহাম্মদ ইলিয়াছ এবং উম্মে রাজিয়া কাজল সভায় অংশগ্রহণ করেন।প্রাথমিক স্কুল শিক্ষার্থী
সভায় ইতোপূর্বে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি প্রতিবেদন উপস্থাপন করে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
সভায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদকে দ্বিতীয় শ্রেণীতে উন্নীত করার ক্ষেত্রে সর্বশেষ অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। এছাড়া প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকের মধ্যকার বেতন বৈষম্য দূরীকরণের জন্য মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।
সভায় ‘হার্ড টু রিচ’ কার্যক্রমের মাধ্যমে শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষা প্রদান সম্পর্কে অবহিতকরণ ও এর অগ্রগতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
সভায় জানানো হয়, সুইডিশ সিডা, কানাডিয়ান সিডা, ইউনিসেফ ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে প্রকল্পটি ২০০৪ সালে একনেক থেকে অনুমোদিত হয় এবং এ প্রকল্পের আওতায় ঢাকা,চট্টগ্রাম,খুলনা, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগসহ গাজীপুর ও নারায়নগঞ্জ জেলায় ১০ থেকে ১৪ বছর বয়সী ১ লাখ ৬৬ হাজার ১৫০ জন শিশু- কিশোর-কিশোরীকে ৪০ মাসব্যাপী মৌলিক শিক্ষা প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে । এর মধ্যে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৯৪২ জন শিশু- কিশোর-কিশোরী মৌলিক শিক্ষা সম্পন্ন করে। ২০ হাজার ১৩০ জন শিক্ষার্থী থেকে ১৭ হাজার ৪০৬ জন শিক্ষার্থী সফলভাবে জীবিকায়ন দক্ষতা সফলভাবে সম্পন্ন করে এবং এদের মধ্যে জনপ্রতি ১১ হাজার টাকা ও ১৬ হাজার টাকা করে সিডমানি প্রদান করা হয়।
প্রথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচির ( পিইডিপি -৩) আওতায় প্রাথমিক বিদ্যালযসমূহে জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে বাস্তবায়িত ওয়াশব্লক এবং গভীর নলকুপ স্থাপনের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। এছাড়া ওয়াশব্লক এবং গভীর নলকুপ স্থাপনের জন্য বিদ্যালয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে সরেজমিনে যাচাই করে নির্বাচন করার, নির্মীয়মান ও নির্মিতব্য ওয়াশব্লক এবং গভীর নলকুপসমূহ নির্মাণ ও স্থাপনের সময় জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের মনিটরিং কার্যক্রম জোরদার এবং সমাপ্ত কাজের বিষয়ে পরবর্তী বৈঠকে প্রতিবেদন উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।
সভায় প্রাথমিক শিক্ষায় সরকারের সাফল্য ও অগ্রগতি এবং প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী আখতার হোসেনসহ মন্ত্রণালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।#

 

স:আরএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট