ইসরাইলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে ঢাবি শিক্ষকদের মানববন্ধন

ফিলিস্তিনের গাজা সহ অন্যান্য অঞ্চলে ইসরাইলি বাহিনীর সামরিক আগ্রাসনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

 

duবৃহস্পতিবার ঢাবির অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এক মানববন্ধন থেকে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।

 

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভিসি প্রফেসর ইউসুফ হায়দার বলেন, গাঁজা উপত্যকায় মুসলমানদের চিরশত্রু ইহুদীরা যে নারকীয় হত্যাযজ্ঞ তা মানবতা বিবর্জিত। এতে বিশ্ব মানবতা চিরতরে ভূলুণ্ঠিত হচ্ছে। বিশ্ববিবেক আজ অসহায় মানুষের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ।

 

প্রফেসর সুকোমল বড়ৃয়া বলেন, ফিলিস্তিনে ইহুদীদের গণহত্যায় বিশ্বময় মানবিক অধিকার বিপর্যস্ত হচ্ছে। অথচ জাতিসংঘ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে । মানবতা যখন চরমভাবে বিপর্যস্ত তখনই ঢাবির শিক্ষকেরা এর প্রতিবাদ জানাতে  রাস্তায় নেমে এসেছে।
ইসলামের ইতিহাসের শিক্ষক ওমর ফারুক বলেন, ইসরাইলের নিষ্ঠুর হামলার শিকার হচ্ছে ফিলিস্তিনের নিরীহ বেসামরিক লোকজন। রেহাই পাচ্ছে না নারী-শিশুরাও। নির্বিচারে চালানো এ গণহত্যায় বিশ্ববিবেক আজ হতবাক, বিক্ষুব্ধ ও ক্ষতবিক্ষত। বছরের পর বছর চলা এ অমানবিক নিষ্ঠুরতা কোন ভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

 

ইসরাইলী হামলার জন্যে ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র দায়ী করে বক্তারা বলেন, তাদের মদদেই ইসরাইল রাষ্ট্রের গোড়াপত্তন হয়েছিল।
বক্তারা অবিলম্বে এ আগ্রাসন বন্ধ করার জন্য ইসরাইলের প্রতি আহবান জানান।

 

সঃ সুউ ফয়সাল

পছন্দের আরো পোস্ট