ঢাকা আঞ্চলিক শিক্ষা অফিসে ঘুষে বাধা দেয়ায় নারী কর্মকর্তা লাঞ্ছিত

maushiঢাকা আঞ্চলিক শিক্ষা অফিসে ঘুষে বাধা দেয়ায় নারী কর্মকর্তা লাঞ্ছিত বদলি বাণিজ্যে বাধা দেয়ায় ঢাকা আঞ্চলিক শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তা কামরুন নাহার বেগমকে লাঞ্ছিত করেছেন সহকর্মী এবং কর্মচারীরা।
অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নিতে সোমবার দুপুরে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালকের কাছে অভিযোগ করেছেন কামরুন নাহার।

 

শিক্ষা অধিদফত সূত্র জানান, সম্প্রতি খিলগাও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কর্মচারী আতাউর রহমান ২ লাখ টাকা ঘুষের বিনিময়ে আঞ্চলিক শিক্ষা অফিসে বদলির তদবির করেন। বিষয়টি জানতে পেরে বিদ্যালয় পরিদর্শক কামরুন নাহার বাধা দেন। বিষয়টি মাউশি’র মহাপরিচালক ফাহিমা খাতুন জানতে পারলে, তিনি বদলি প্রত্যাহার করে নেন।

আঞ্চলিক অফিসের উপপরিচালক মোস্তফা কামাল এবং কর্মচারী নেতা খুররম জামান মোল্লার বিরুদ্ধে এ বদলি বাণিজ্যের অভিযোগ আনা হয়।
কামরুন নাহার বলেন, আজ সোমবার সকালে খুররম মো্ল্লা আমার রুমে এসে অকথ্য ভাষায় কথা বলেন। এমনকি ‘তুই’ বলেও সম্বোধন করেন। এছাড়াও এমন অনেক কথা বলেছেন, যেগুলো ভদ্র নয়।

ঘটনায় মানসিকভাবে আঘাত পেয়ে কামরুন নাহার সোমবার দুপুরেই মাউশি’তে আসেন।

তিনি মোস্তফা কামাল এবং খুররম মোল্লার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। ফাহিমা খাতুন এবং পরিচালক সুজন কান্তি মন্ডলের কাছে তিনি এ অভিযোগ করেন।

 

স: ইএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট