‌’বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত টিআইবির প্রতিবেদন অসম্পূর্ণ’

Emaz-uddin

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) প্রকাশিত প্রতিবেদন অসম্পূর্ণ ও উদ্দেশ্যমূলক বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর (ভিসি) ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড. এমাজউদ্দিন আহমেদ।

 
রোববার দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে জরুরি আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

 

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ৭৯টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ও চেয়ারম্যানরা আলোচনা সভায় অংশ নেন।

 

ড.এমাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, টিআইবির প্রতিবেদন আমার কাছে সত্য বলে মনে হয় না।
প্রতিবেদনে যাদের সম্পর্কে বলা হয়েছে তাদের মতামত নেয়া হয়েছে বলেও আমি মনে করি না।
প্রতিবেদনে জ্ঞানের সঠিক ব্যবহার হয়নি। যে কয়টা বিশ্ববিদ্যালয় আদালতের অনুমতি নিয়ে চলছে তারা হয়তো তাদের ওপর গবেষণা করে এ প্রতিবেদন তৈরি করেছেন।

 

৩০ জুন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় : সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তোরণের উপায়’ শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করে টিআইবি। এতে অন্তত ৬০ ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতি, ১১ খাতে ঘুষ বাণিজ্য, সনদ বাণিজ্যসহ নানা বিষয় তুলে ধরা হয়।
টিআইবির এ প্রতিবেদন সরাসরি প্রত্যাখ্যান না করলেও শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, ‘প্রতিবেদনটি অসত্য। তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ ছাড়া ওই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনার জন্যই এ জরুরি সভার আয়োজন করা হয়।

 
স: ইএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট