খুবি ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল ভাংচুর। চিকিৎসকদের কর্মসুচি

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের ছাত্র অমিত রায়কে চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগে খুলনার গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভাংচুর এবং জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. তানভীর আহমেদ বাপ্পাকে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবারের এ ঘটনায় গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার বঙ্গ কমল বসু বাদী হয়ে খুবির ১৫ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে সোনাডাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে চিকিৎসক ও ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক মালিকদের সংগঠনের পক্ষ থেকে দুইদিনের যৌথ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।Photo of KU Student Amit Ray

পুলিশ জানায়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকশ’ ছাত্র বৃহস্পতিবার গভীর রাতে গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। এক পর্যায়ে তারা হাসপাতালে কর্তব্যরত জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তানভীর আহমেদ বাপ্পাকে অপহরণ করে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নিয়ে মারধর করে। শুক্রবার ভোরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার আসামিরা হচ্ছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মনি, সঞ্জয়, উচ্ছাস, তাজ, মিলন, মাসুদ মনি, সাইফুল ইসলাম বাপ্পি, শামিম, হাসান, সুজন, সুমন সরকার, মেহেদী হাসান, আজাদ, পলাশ ও মাহামুদ হাসান। মামলায় অজ্ঞাত পরিচয়ের আরও ২৫০ থেকে ৩০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। হামলায় হাসপাতালের ৫ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে এ মামলায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাতে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ), বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল প্রাকটিশনার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমপিএ) এবং বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিসিডিওএ) সভায় দুইদিনের যৌথ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আজ ও আগামীকাল খুলনার সব বেসরকারি ক্লিনিক, হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক, প্রাইভেট চেম্বার সম্পূর্ণবন্ধ থাকবে। সব সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক কালো ব্যাজ ধারণ করবেন, ৬ জুলাই সংবাদ সম্মেলন, মিডিয়া সম্মেলন ও প্রশাসনের কাছে স্মারকলিপি পেশ এবং ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সন্ত্রাসী, অপহরণকারীরা গ্রেফতার না হলে সোমবার থেকে সরকারি, বেসরকারি ক্লিনিক, হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক ও প্রাইভেট চেম্বার সম্পূর্ণ বন্ধ রাখা হবে।

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) খুলনা শাখার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. শেখ মোঃ আখতার-উজ-জামান বলেন, এ কর্মসূচির সঙ্গে তারাও একাত্মতা প্রকাশ করেছেন।

উল্লেখ্য, ২ জুলাই নগরীর নিউমার্কেট এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের ছাত্র অমিত রায় (২২) আহত হয়। আহত অমিতকে চিকিৎসার জন্য গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়। ঢাকায় নেয়ার পথে রাত সাড়ে ১১টায় সে মারা যায়। এ ঘটনায় গাজী মেডিকেলের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ আনে খুবি শিক্ষার্থীরা।#

 

আরএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট