উচ্চতর ডিগ্রির জন্য বিদেশ গিয়ে দেশে ফিরছেন না শিক্ষকরা

বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অনেক শিক্ষকই উচ্চতর ডিগ্রির জন্য বিদেশ গিয়ে আর দেশে ফিরছেন না। ফলে শিক্ষা কার্যক্রমে দেখা দিয়েছে স্থবিরতা। তিনজন শিক্ষকের কাজ অনেক ক্ষেত্রে একজন শিক্ষককে দিয়ে চালাতে গিয়ে হিশশিম খেতে হচ্ছে অন্য শিক্ষকদের।

শিক্ষার্থীরাও পরিপূর্ণ শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে সরকারি নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করার অনেক অভিযোগও পাওয়া গেছে । বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ছুটি নিয়ে বিদেশ গেলেও সময়মত ফিরে না এসে তারা সরকারি বিধি ভঙ্গের পাশাপাশি সরকারের লাখ লাখ টাকা অপচয় করছেন। download (3)

এ বিষয়ে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয়মঞ্জুরি কমিশন-ইউজিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮ হাজার ৩২০ জন শিক্ষকের মধ্যে ১ হাজার ৫২৯ জন ছুটিতে, ১৫৩ জন প্রেষণে এবং ৫২ জন রয়েছেন অননুমোদিত ছুটিতে। এদের অনেকেই আর দেশে না ফিরতে পারেন এমন আশংকাও রয়েছে স্ব স্ব বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের।

বিভিন্ন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছুটিতে থাকা শিক্ষকদের এ তালিকা দেশের শিক্ষা বিশেষজ্ঞদের ভাবিয়ে তুলেছে। তারা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উচ্চতর ডিগ্রি সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থেই প্রয়োজন। কিন্তু শিক্ষা ছুটির নামে দেশের মেধাবী শিক্ষকদের এভাবে বিদেশে চলে যাওয়া এবং আর ফিরে না আসা দেশের শিক্ষাঙ্গনকে বড় ধরনের সঙ্কটের মধ্যে ফেলে দিতে পারে বলে অনেকেই উদ্বিগ্ন।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক এম মনিরুজ্জামান মিঞা বলেন, অধিক সংখ্যক শিক্ষক একই সময় শিক্ষা ছুটিতে যাওয়া ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য অনেক বড় সংকটের সৃষ্টি করে। এ অবস্থায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নিয়ম এবং বিভাগীয় পদ্ধতি মেনে যদি শিক্ষকদের শিক্ষা ছুটি দেয়া এবং তা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কঠোর নজরদারীতে রাখা হয় তবে এ সমস্যা কমে আসতে পারে ।

আর শিক্ষা ছুটিতে যাওয়ার জন্য যে নীতিমালা আছে, তাকে আরও যুগপোযোগী করার পরামর্শ দিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই ভিসি। শিক্ষা ছুটির প্রশ্নে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কিছুটা শৈথিল্য এ জন্য দায়ী বলে মনে করেন অধ্যাপক মনিরুজ্জামান মিঞা।

বিশিষ্ট কলামিস্ট ফরহাদ মাজহার বলেন, তৃতীয় বিশ্বের গরীব অর্থনীতি এর জন্য বড় দায়ী। আমাদের দেশের শিক্ষকদের প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধার অভাব থাকায় যারা উচ্চতর ডিগ্রির জন্য বিদেশ যান, তারা শিক্ষা শেষে অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা পাওয়ার কারণেই দেশে ফিরছেন না। অবশ্যই একইসঙ্গে দেশের প্রতি ওইসব উচ্চতর ডিগ্রিধারীদের কমিটমেন্টের অভাবকেও দায়ী করেন এ বিশ্লেষক।

কলামিস্ট ফরহাদ মাজহার মনে করেন, এই মেধাবী শিক্ষকরা বিদেশে গিয়ে ফিরে না আসায় দেশের মেধা দিন দিন পাচার হয়ে যাচ্ছে, যার জন্য বুদ্ধি বৃত্তিক উন্নয়নের দিক থেকে বাংলাদেশ বড় ধরনের একটা সঙ্কটে পড়বে বলে মনে করেন তিনি।

ফরহাদ মাজহার বলেন, শিক্ষকরা যারা জাতি গঠনের কারিগর, তাদের বেতন ভাতা না বাড়িয়ে সরকার মন্ত্রী এমপিদের বেতনভাতা বাড়ানোয় বেশি ব্যস্ত। এটা খুব ভাল লক্ষন নয় বলে মনে করেন তিনি। শিক্ষকদের পূর্ণ সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করে দেশে উচ্চতর ডিগ্রিধারী শিক্ষকদের ফিরিয়ে আনতে সরকার উদ্যোগ গ্রহণ করবে এমনটা আশা দেশের শিক্ষা গবেষক ও বিশ্লেষকদের।#

 

স: আরএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট